পাহাড়ি পরিবেশে বছরের প্রথমদিনগুলি কাটানোর মজাই আলাদা। শীতের সকাল, চারাদিকে কুয়াশা, বেলা বাড়লেই মিঠে রোদ এসে পড়ে শরীরে। এই পরিবেশে থাকলেই মন ভাল হতে এক মুহূর্তও লাগে না। তেমনই মধুমিতা সরকারও পাহাড়ি পরিবেশে গিয়ে জীবনের সবচেয়ে বেশি শান্তি পান তিনি। নতুন বছর সেখানেই কাটাচ্ছেন তিনি। হাইকিং, ক্যাম্পিং, সোলো ট্র্যাভেলিংয়েই মন দিয়েছেন মধুমিতা। সেখানে গিয়েই খুঁজে পেলেন নিজের সঙ্গীকে।

যাকে নিয়ে কলকাতা ফিরতে চান অভিনেত্রী। তার আসল পরিচয় হল যোশ। তবে মধুমিতা তার নাম দিয়েছেন কুচি। অবশ্য তাকে দেখলে যেকোনও মানুষেরই এমনই নাম মাথায় আসবে। এই যোশ ওরফে কুচি হল পাহাড়ি কুকুর। সাদা রঙের লোমশ এই কুকুরটি কোলে নিয়ে বেজায় খুশি মধুমিতা। কোনও মতে তাকেই কোল ছাড়া করবেন না তিনি। এমনকি সেই কুচিও কিছুতেই মধুমিতাকে ছাড়বে না। চুপচাপ তাঁর কোলে বসে আদর খেয়ে চলেছে।  

আরও পড়ুনঃরঙবেরঙের জগতে মনামীর জাদু, মিনি ড্রেসে মুম্বই নগরী কাঁপাচ্ছেন বঙ্গতনয়া

 

এই পাহাড়ি পরিবেশে কুচিকে খুঁজে পাওয়ার পাশাপাশি নিজের অভিনেত্রী সত্ত্বাকে হারিয়ে প্রতিবারই এক অন্য মধুমিতাকে খুঁজে পান তিনি। এই নিয়ে কোনও আক্ষেপ নেই অভিনেত্রীর। বরং সেই হারিয়ে যাওয়াকেই আনন্দের সহিত মেনে নিলেন তিনি। এই হারিয়ে যাওয়া অবশ্য সত্যিকারের হারিয়ে যাওয়া নয়। রঞ্জু ভ্যালির কঠিন একটি হাইকে বেরিয়ে পড়েছিলেন তিনি। কঠিন এই হাইকে পাথরে সাবধানে পা রেখে এগোচ্ছেন মধুমিতা। গাইড রয়েছেন তাঁকে সাহায্যের জন্য। যদিও সাহায্য ছাড়াই হাইকিংয়ে পারদর্শী মধুমিতা।