মধুমিতা সরকারের পুজো মানেই ফ্যাশন ও রূপের বহর। পঞ্চমীতে সেজে উঠলেন হলুদ রঙের কুর্তিতে। তাঁর এই ভিন্ন অবতারে ভক্তদের মনে পড়ে গিয়েছে 'সেই যে হলুদ পাখি' গানটির কথা। মধুমিতার এবার পুজো কাটাবে ভক্তদের সঙ্গে। এমনটা খোদ জানালেন অভিনেত্রী। পুজোর প্ল্যান কী, এই প্রশ্নটিই সকলকে করলেছিলেন মধুমিতা। সেখানেই এক ভক্ত লেখে সে তাঁর সঙ্গে ঘুরতে যেতে যায়। মধুমিতাও নিমেষে উত্তর দেয় তিনিও সেই ভক্তের সঙ্গে যেতে রাজি। মধুমিতার সঙ্গে ভক্তের এই পুজো প্ল্যান নিয়ে রীতিমত উৎসাহিত সকলে। যদিও কথাটি খেলার ছলেই লেখা। তবে এই মজাই বা কম কোথায়। 

প্রসঙ্গত, সামাজিক দূরত্ব খনিকের জন্য ভুলেছেন টলিউডের গুটি কতক তারকারা। সেই তালিকায় রয়েছেন মধুমিতা সরকার, পায়েল সরকার, সঞ্জনা বন্দ্যোপাধ্যায়, জন ভট্টাচার্য, রাজদীপ গুপ্তা, সহ আরও কয়েকজন। সামাজিক দূরত্ব ভুলে আগের মত পার্টি করার পিছনে রয়েছে নাইটলাইফ, ক্লাবিং। বহুদিন ক্লাবিং করেন না কেউই। করোনা আবহ, লকডাউন, সামাজিক দূরত্বের জেরে বন্ধ হয়েছে সবই। সম্প্রতি একটি ব্র্যান্ড প্রচারের জন্য হয়েছিলেন তাঁরা। সেখানেই মাস্ক ছাড়া একে অপরের সঙ্গে জড়াজড়ি করে নিজেদের পার্টি অ্যানিমাল জাগিয়ে তুলেছেন মধুমিতা, পায়েল, জন, সঞ্জনা, রাজদীপ। 

আরও পড়ুনঃসৃজিত-মিথিলা সংসারে নতুন দুই সদস্য, সুখবর দিলেন বাংলাদেশি সুন্দরী

আরও পড়ুনঃবিগ বস হাউজে থেকেই প্রেমে পড়লেন কুমার শানুর ছেলে জান, কে সেই মহিলা জেনে নিন

কালো পোশাকে সেজে উঠে ক্লাবিংয়ের তালে নেচে উঠেছিল সকলের মন। মন খুলে দীর্ঘদিন পর নাচ করলেন তাঁরা। সেই ভিডিওগুলি পোস্ট করেছিলেন সঞ্জনা। নিজের ইনস্টাগ্রাম স্টোরিতে শেয়ার করেছিলেন তিনি। সেখান থেকেই আপাতত রীতিমত ভিডিও, ছবি ভাইরাল হয়ে গিয়েছে নেটদুনিয়ায়। যশের দুই নায়িকা মধুমিতা এবং সঞ্জনাকে দেখা গিয়েছে জড়াজড়ি করে একে অপরের সঙ্গে নাচ করতে। পরিবেশের মজা নিতে। সেখানে যোগদান করেছিলেন জন, রাজদীপ, পায়েল সহ অনেকে।