করোনা আতঙ্কে কাঁপছে গোটা বিশ্ব। পাশাপাশি ভারতেও রাতারাতি বেড়ে চলেছে করোনা ভাইরাসের দাপুট। এরই মাঝে জনসাধারণের উদ্দেশে ভিডিও পোস্ট করে মারাত্মক ট্রোলিংয়ের শিকার হলেন অভিনেত্রী মিমি চক্রবর্তী। নিজের ইনস্টাগ্রামে একটি ভিডিও পোস্ট করেন বেসিক স্যানিটাইজিং নিয়ে। সেই ভিডিও নিয়েই তোলপাড় নেটদুনিয়া। 

লন্ডন থেকে ফেরার পর থেকে ট্রোলার এবং হেটারসদের পাল্লায় পড়েছেন মিমি। যার থেকে পালিয়ে বেড়ানো যেন একেবারেই অসম্ভব হয়ে উঠেছে তাঁর জন্য। সম্প্রতি নিজের ইনস্টাগ্রামে পরিস্কার পরিচ্ছন্ন থাকার এবং ইমিউনিটি বাড়ানোর জন্য একটি ভিডি পোস্ট করেন। ভিডিওতে তিনি নানা রকমের তথ্যই দিয়েছিলেন। যেমন ভিটামিন সি শরীরে এই মুহূর্তে আরও বেশি কেন দরকার, পি সেফ দিয়েও কীভাবে স্যানিটাইজ করা যায়, বাড়িতে থাকা জিনিস দিয়েই একটি রস তৈরি করে কীভাবে ইমিউনিটি বাড়াবেন, প্রভৃতি। 

আরও পড়ুনঃ'সামনের ১০-১৫ দিন বিপদজনক', হাতজোড় করে সহোযাগীতা চাইলেন কিং খান

আরও পড়ুনঃহাসপাতাল নয়, এ যেন পাঁচতারা হোটেল, কণিকার ব্যবহারে ক্ষুব্ধ নার্স থেকে ডাক্তার

 

 

জনসাধারণের সাহায্য করতে গিয়ে ট্রোলের মুখে পড়লেন মিমি। কমেন্ট সেকশনে একবার চোখ বোলালেই বোঝা যাচ্ছে, মিমির লন্ডন থেকে এই সময় ফেরাটাকে মোটেই ভালভাবে নেয়নি শহরের মানুষ। এমনকি তাঁর কিছু ভক্তরাও বেজায় চটে মিমির উপর। অনেকেই মন্তব্য করেছেন, "সো কলড হোম আইসোলেশনে থেকে জ্ঞান দেওয়া খুবই সহজ", "বিমানবন্দরে মাস্ক না ঘুরছিলেন। এতই যদি সকলের চিন্তা থাকত তাহলে দেশে ফিরলেন কেন এমন কঠিন সময়।"

আরও পড়ুনঃবাঙালিদের সঙ্গে প্রবল মিল এই অভিনেত্রীর, তাঁর গোপন বিয়ে নিয়ে তোলপাড় চলচ্চিত্র জগত

এই ধরণের অসংখ্য কমেন্টেই বিদ্ধ হয়েছেন মিমি। এখনও পর্যন্ত এই মন্তব্যের পাল্টা জবাব মিমি দেননি। তবে কিছু সংখ্যক নেটিজেনরা রয়েছে, যারা এই সময় মিমিকে যথেষ্ট সমর্থন করেছেন।