হাথরসই প্রথম নয়, এমনই শত শত নির্ভয়ারা দগ্ধে মরছে প্রতিটা মুহূর্তে। আর সেই নৃশংস ঘটনাই দগদগে ঘা হয়ে যাচ্ছে সমাজের বুকে। হাথরসের ঘটনা জেরে এখন তোলপাড় গোটা দেশ। সেলেব মহল থেকে শুরু করে সাধারণ মানুষ, একে একে মুখ খুলেছেন এই জঘন্য বিষয়ে সমাজকে সচেতন করতে। প্রশ্ন উঠে এসেছে সমাজ, মানসিকতা ও উন্নতি নিয়েও। কোথায় দাঁড়িয়ে এখনও আমার। প্রশ্ন উঠেছে প্রশাসনের ভুমিকা নিয়েও। 

এবার আর মুখ বন্ধ রাখলেন নানা অভিনেত্রী তথা সাংসদ মিমি চক্রবর্তীও। গর্জে উঠলেন মেয়েদের সম্মান নিয়ে। শুরু হয়েছে দেবী পক্ষ। প্রস্তুতি পাড়ায় পাড়ায় ঘরে ঘরে। যার শিংহভাগটাই সামলে থাকেন পুরুষেরা। এবার সেই দেবী বন্দনাকেই খোঁচা দিয়ে প্রশ্ন তুললেন মিমি চক্রবর্তী, নারী যদি দেবী হয় তবে তাঁকে কেন এত অসম্মান। সোশ্যাল মিডিয়ায় রবিবার সকালে একটা পোস্ট করে এমনটাই প্রশ্ন তুললেন তিনি। 

 

 

লিখলেন, নারী যদি শক্তি হয়, নারী যদি আদ্যা হয়, নারীকে যদি মা মানেন, নারীকে যদি সম্মান করেন,  তাহলে, আজ এই অমর্যাদা কেন ! বলুন না... পরণে সাদা শাড়ি লাল পাড়। পেছনে মা দূর্গার কাঠামো। যাঁদের মা বলি, যাঁদের দেবী বলে পুজো করি, যাঁদের আদ্যাশক্তি বলি, তাঁদের এতটা কষ্ট দিতে হাত কাঁপে না, এই হাতই তো ঈশ্বরের সামনে জোড় হয়ে যায়, মিমির আবেগঘন পোস্ট মুহূর্তে নজর কাড়ে ভক্তদের।