অভিনয় জগতে পা রাখার পর থেকেই সকলের নজর কেড়েছিলেন মিমি চক্রবর্তী। বরাবরই তিনি তাঁর ভক্তদের প্রতি একটু বেশি দূর্বল। মানুষের কাছে গিয়ে কাজ করার ইচ্ছে ছিল তাঁর বরাবরই। সেই মর্মেই জনপ্রতিনিধি হিসেবে নির্বাচিত হওয়া। তবে সেলিব্রিটি বলে কেবল পর্দায় ওপারেই থাকা নয়। বাস্তবের মাটিতে নেমেই এলাকাবাসির হয়ে কাজ করছেন মিমি চক্রবর্তী। 

আরও পড়ুন-শরীরী উষ্ণতায় কাঁপছে নেটদুনিয়া, ৪৩-এও সুপারহট আমিশা

আরও পড়ুন-মধুচন্দ্রিমায় আন্নাকালী, বিয়ের পর উড়ে গেলেন ব্যাংকক-পাটায়া

লোকসভা নির্বাচনের প্রচারেই মিমি জানিয়ে ছিলেন তিনি সাধারণ মানুষের সেবা করতে চান। জয় লাভের পর সেই কথা অতীত হয়ে যায়নি। নিজের এলাকা নিয়ে তিনি কতটা সচেতন তার প্রমাণ মিলেছে বহুবার। সম্প্রতি আগুন দেখে ছুঁটে এসেছিলেন তিনি। স্থানীয় স্কুলে বসিয়েছেন স্যানেটারি প্যাড ভেন্ডিং মেশিন৷ এবার মিমির হাত ধরে এল মেয়েদের প্রশিক্ষণ সংগঠন সুকন্যা। সেখানেই মেয়েদের ক্যারাটে শিক্ষাও দেওয়া হবে। 

আরও পড়ুন-শরীরী বিহঙ্গে উপচে ভরা যৌবন, ইনস্টাগ্রামে আগুন লাগালেন মিষ্টি

সম্প্রতি এক আলোচনাসভার আয়োজন করেছিলেন মিমি চক্রবর্তী। সেখানেই উপস্থিত ছিল স্থানীয় ২৬ স্কুলের প্রতিনিধি। ঋতুস্রাব নিয়ে সচেতনতা তৈরি করা থেকে শুরু করে মহিলাদের বিভিন্ন শারীরীক সমস্যার কথা এদিন তুলে ধরলেন তিনি। আলোচনাসভায় উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রের বিধায়ক মাননীয় জীবন মুখোপাধ্যায়, পুরমাতা সোনালী রায়। এবার সুকন্যার হাত ধরেই যাদবপুরে নিরাপদে পথ চলবে ছাত্রীরা।