বসিরহাটের পাশে প্রতিটা পদক্ষেপে রয়েছেন নুসরত জাহান। লকডাউনের শুরু থেকেই প্রতিদিন খোঁজ নিয়ে চলেছেন তিনি। সেই এলাকার মানুষদের যেন কোনও রকমের সমস্যা না হয়, সেই দিকেও দিয়েছেন কড়া নজর। শুরু থেকেই তিনি স্থানীয় সকল আধিকারিকদের  জানিয়েছিলেন, প্রতিটা মুহূর্তে এলাকা বাসীদের খেয়াল রাখতে হবে, খাবারে সমস্যায় যেন কাউকে না পড়তে হয়। রেশন যেমন সঠিক সময় সকলেই পায় সকলে। পাশাপাশি তিনি গঠন করেছিলেন একটি বিশেষ টিম, তাঁদের থেকেই নিত্য খবর নিচ্ছেন এখন নুসরত। 

আরও পড়ুনঃ অসুখ কোনও কলঙ্ক নয়, শৈশবের দিনই বাঁচাবে করোনা থেকে, উপদেশ অমিতাভের

এবার সাংসদ নজর দিলেন বসিরহাটের স্বাস্থ্যের দিকে। শনিবার বাড়ি থেকেই ভিডিও কলে কথা বলেনিলেন স্বাস্থ্য দফতরের আধিকারিকের সঙ্গে। এই বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন বসিরহাট স্বাস্থ্য জেলার মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক দেবব্রত মুখোপাধ্যায়, উপ মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক নির্মাল্য রায় সহ আরও অনেকেই। লোকসভাবে কেন্দ্রে যাতে ডাক্তার ও স্বাস্থ্যকর্মীদের পরিষেবা দিতে কোনও অসুবিধে না হয়, তাই তাঁদের সুরক্ষার জন্য নুসরত দিলেন প্রায় সাড়ে ছয় লক্ষ টাকা। যা থেকে প্রয়োজনীয় সামগ্রী, পিপিই কিট কেনা হবে। 

 

 

পাশাপাশি এদিন নুসরত কথা বলেন বসিরহাটের করোনা পরিস্থিতি নিয়ে। সেখানের মানুষের ঠিক কী কী অসুবিধে হচ্ছে, লকডাউন কতটা মানছে সকলে, স্থানীয় পুলিশের কোনও সমস্যা হচ্ছে কী না সব দিকেই আলোকপাত করেন। বর্তমানে করোনা ঠেকাতে আর কী কী পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে, কীভাবে চলা উচিত সব নিয়ে এদিন দীর্ঘক্ষণ বৈঠক করেন নুসরত। সঙ্গে এও জানান, ইফতারের সময় যেন রাস্তায় সেভাবে কেউ ভিড় না করে, সেই দিকগুলোও নজরে রাখতে হবে। সোশ্যাল মিডিয়ায় ছবি ও ভিডিও শেয়ার করে বৈঠকের কথা নিজেই জানান নুসরত।  

করোনা মোকাবিলায় রক্ষা করুন নিজেকে, মেনে চলুন 'হু' এর পরামর্শ

সাবধান, করোনা আতঙ্কের মধ্যে এই কাজ করলেই হতে পারে জেল

কী করে করোনার হাত থেকে রক্ষা করবেন আপনার বাড়ির বয়স্ক সদস্যদের, রইল তারই টিপস

শরীরে কীভাবে থাবা বসায় করোনা, জানালেন বিশেষজ্ঞরা