সুশান্তের মৃত্যুর তদন্তে একের পর এক নয়া মোড় বেরিয়ে আসছে।  সুশান্তের মৃত্যুতে একাধিক অভিযোগের আঙুল উঠেছে প্রেমিকা রিয়ার দিকে। নেটদুনিয়াতেও ট্রেন্ডিং  একটাই নাম রিয়া চক্রবর্তী। সুশান্তের মৃত্যুতে যেভাবে একের পর এক অভিযোগ উঠেছে রিয়ার বিরুদ্ধে, তার জন্য মানুষের ঘৃণা তৈরি হয়েছে রিয়ার বিরুদ্ধে। রিয়ার উপর রাগে অনেকেই বাঙালি মহিলাদের নিয়ে কদর্য আক্রমন করাও শুরু করে দিয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে থাকা রিয়া চক্রবর্তীর কারণেই সমস্ত বাঙালি মহিলাদের অশ্লীল-নোংরা কথার শিকার হতে হচ্ছে। এবার সমস্ত বাঙালি মেয়েদের নিয়ে সরব হলেন তৃণমূল সাংসদ তথা টলি অভিনেত্রী নুসরত জাহান।

আরও পড়ুন-মাঝরাতে গুলির তান্ডব, মুম্বই থেকেই হামলার ছক কষছে দুস্কৃতিরা, দাবি কঙ্গনার...


নেটিজেনদের একাধিক  কুমন্তব্যে ভরে গিয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ার পাতা।  এক ব্যক্তি লিখেছেন, 'রিয়া বাঙালি মেয়েদের জনপ্রিয় করে দিল'। তার উত্তরে নুসরত তাকে যোগ্য জবাব দিয়েছেন, 'তিনি জানিয়েছেন, তুমি যদি হঠাৎই পৃথিবীতে নেমে এসে থাকো তাহলে বলে রাখি বাংলা তার নিজস্ব সংস্কৃতি এবং ঐতিহ্যের জন্য সবসময়েই বিখ্যাত। গোটা বিশ্ব বাংলা  রবীন্দ্রনাথ ও সত্যজিতকে চেনে। এবার তোমায় আরও বেশি ফেমাস করে দিলাম'।

 

নেটিজেনদের আরেকজন লিখেছেন,'বাঙালি মেয়েরা জানে কীভাবে পুরুষদের উপর আধিপত্য বিস্তার করতে হয়। ওরা মাছ ধরে, তাই উচ্চ আয়যুক্ত ছেলেদেরও ধরতে জানে।' এই অশ্লীল আক্রমণের জবাবও কড়া ভাষায় দিয়েছেন নুসরত।   তিনি লিখেছেন, 'আমরা বাঙালি মেয়েরা ভাল রান্না করেও তাক লাগাতে জানি। নিজেদের স্বার্থসিদ্ধির জন্য একটা সম্প্রদায়ের বিরুদ্ধে কথা বলা দয়া করে বন্ধ করুন।  আপনি মনে হয় এখনও বাংলার মাছ, মশলা, মিষ্টি চেখে দেখেননি না।'


সোশ্যাল মিডিয়ায় বাঙালি মেয়েদের যাঁরা আক্রমণ করেছেন, তাদের জবাবে এক ব্যক্তি লিখেছেন, 'আমিও বাঙালি তবে রিয়া চক্রবর্তীকে সমর্থন করি না।' সেই রেশ টেনেই সাংসদ অভিনেত্রী জানিয়েছেন, 'কাউকে সমর্থন করে একথা বলছি না। কেউ যদি দোষী হয়, তাহলে আইন নিশ্চয়ই তাকে শাস্তি দেবে। ভারতীয় বিচার ব্যবস্থার উপর আমার পূর্ণ আস্থা রয়েছে। আশা রাখি খুব শীঘ্রইই আসল সত্যিটা সবার সামনে আসবে। তবে একজনের জন্য সমগ্র বাংলা জাতির অপমান আমি কখনওই মেনে নেব না'।

 

সুশান্তের পরিবারের তরফে দায়ের করা এফআইআর থেকে বিহার পুলিশ ইতিমধ্যেই সুশান্ত হত্যার তদন্ত শুরু করে দিয়েছে। সুশান্তের মৃত্যুর আগেই কোটি কোটি টাকা ঘায়েব করে সরিয়ে নিয়েছিল প্রেমিকা রিয়া চক্রবর্তী। প্রায় ১৫ কোটি টাকা সুশান্তের ব্যাঙ্ক থেকে সরিয়ে নিয়েছিলেন। এমনই বিস্ফোরক অভিযোগ অভিনেতার বাবার। বিহার পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, সুশান্তের উপর কালা জাদু করত রিয়া চক্রবর্তী। ইচ্ছাকৃতভাবে সুশান্তকে অসুস্থ করার জন্য মানসিক রোগের ওষুধে অতিরিক্ত ওভারডোজ দেওয়া হতো। প্রায় ১৫ কোটি টাকা সুশান্তের ব্যাঙ্ক থেকে হাতিয়ে  নিয়েছিলেন রিয়া। সুশান্ত আগে যেখানে থাকত সেখান থেকে সুশান্তকে প্ল্যান করে বার করেছিল রিয়া। এবং রিয়ার পুরো পরিবারের সঙ্গেই সেখানে থাকত সুশান্ত। সুশান্তকে  এমনও বলা হয় সেখানে ভূত রয়েছে, রীতিমতো দিনের পর দিন ভূতের ভয়ও দেখানো হতো। তার কথাবার্তা অস্বাভাবিক হচ্ছে বলে চাপ দেওয়া হতো সুশান্তকে। মানসিক রোগে ভুগছে বলে তাকে মনোরোগ বিশেষজ্ঞের কাছে যাওয়ার জন্য চাপ দেওয়া হতো।মানসিক রোগের অজুহাত দেখিয়েই মানসিক অবসাদের  ওষুধের ওভারডোজ দেওয়া হতো।