Asianet News Bangla

থমকে গেল মঞ্চে দাপানো সত্যজিতের 'বিমলা', শেষ থেকে শুরু'র আগেই তারাদের দেশে স্বাতীলেখা

  •  প্রয়াত হলেন  সত্যজিতের বিমলা
  • হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন স্বাতীলেখা সেনগুপ্ত
  • থিয়েটার দিয়েই অভিনয়ের হাতেখড়ি স্বাতীলেখার
  • ৩১ বছর পরে সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে পর্দায় ফিরেছিলেন স্বাতীলেখা
obituary of bengali versatile actress swatilekha sengupta the story will surprise you BRD
Author
Kolkata, First Published Jun 16, 2021, 5:25 PM IST
  • Facebook
  • Twitter
  • Whatsapp

একজনের মৃত্যুশোক কাটিয়ে উঠতে না উঠতেই ঘাড়ের উপর নিঃশ্বাস ফেলছে অন্য  প্রিয়জনের মৃত্যুসংবাদ। চারিপাশ জুড়ে যেন শোকের ছায়া। প্রয়াত হলেন বাংলার বিখ্যাত নাট্যব্যক্তিত্ব সত্যজিতের 'বিমলা' স্বাতীলেখা সেনগুপ্ত। দীর্ঘদিন ধরেই কিডনির সমস্যায় ভুগছিলেন স্বাতীলেখা সেনগুপ্ত।  একটানা ২৫ দিন আইসিইউ-তে ভর্তি ছিলেন অভিনেত্রী, চলছিল ডায়ালিসিস। শেষরক্ষা হল না আর। হৃদরোগে আক্রান্ত হয়েই বুধবার বেসরকারি হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন স্বাতীলেখা সেনগুপ্ত। অভিনেত্রীর মৃত্যুতে শোকের ছায়া নেমে এসেছে বিনোদন জগতে।

আরও পড়ুন-পদ্মার ইলিশ নাকি নবাবী বিরিয়ানি, জামাই আদরে কী পড়তে চলেছে পাতে, রইল সেলেব জুটির প্রথম ষষ্ঠীর ঝলক...

আরও পড়ুন-পরকীয়ার নেশায় মজে নুসরত, ব্যোমকেশই কি খুঁজে বার করবেন অভিনেত্রীর গর্ভের সন্তানের আসল বাবাকে...

আরও পড়ুন-বরুণ-নাতাশার কোলে এল নতুন অতিথি, বিয়ের ৪ মাসের মধ্যেই 'বাবা' হওয়ার সুখবর দিলেন ডেভিড পুত্র...

 

আবারও এক উজ্জ্বল নক্ষত্রকে হারাল টলিপাড়া। চলতি বছর ২২ মে ৭১-এ বছরে পা দিয়েছিলেন বর্ষীয়ান অভিনেত্রী স্বাতীলেখা সেনগুপ্ত। পালনও করেছিলেন জন্মদিন। থিয়েটার থেকে পর্দার দাপুটে অভিনেত্রী, তার অভিনয় দক্ষতা নিয়ে নতুন করে আর কিছুই বলার অপেক্ষা রাখে না। সালটা ১৯৭০, এলাহাবাদে এ সি বন্দ্যোপাধ্যায়ের নির্দেশনায় থিয়েটারে কাজ শুরু করেন স্বাতীলেখা। তারপর ১৯৭৮ সালে কলকাতায় চলে এসে 'নান্দীকার' নাট্যদলে যোগ দেন অভিনেত্রী। নান্দীকারে রুদ্রপ্রসাদ সেনগুপ্তের নির্দেশনায় কাজ শুরু করে স্বাতীলেখা।  সেখান থেকেই নাট্যব্যক্তিত্ব রুদ্রপ্রসাদ সেনগুপ্তর সঙ্গে প্রেম ও বিয়ে এবং সংসার। তাদের একটি কন্যা সন্তানও রয়েছে, সোহিনী সেনগুপ্ত।  মায়ের মতোই নাট্যজগতে এবং অভিনয়ে নিজের জায়গা তৈরি করে নিয়েছেন সোহিনী।

 

 

থিয়েটার দিয়েই অভিনয়ের হাতেখড়ি স্বাতীলেখার। থিয়েটারের দাপুটে অভিনেত্রী ১৯৮৪ সালে সত্যজিৎ রায়ে 'ঘরে বাইরে' চলচ্চিত্রে মুখ্য নারী চরিত্র বিমলার ভূমিকায় ফাটিয়ে অভিনয় করেন। তারপরেই সিনেমাপ্রেমীদের মনে নিজের জায়গা পাকাপাকি করে নেন সত্যজিতের বিমলা।   বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ঘরে বাইরে উপন্যাসের উপর ভিত্তি করে বানানো ছবির বিমলা চরিত্র আজও দর্শকমনে গাথা। ছবিতে সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ও ভিক্টর বন্দ্যোপাধ্যায়ও সঙ্গে স্ক্রিন শেয়ার করেছিলেন স্বাতীলেখা। অল্প কয়েকদিনের মধ্যেই অভিনয় জগতে নিজের ছাপ রাখেন বর্ষীয়ান অভিনেত্রী। অভিনেত্রীর প্রয়াণে অভিনয় জগতে এক বিশাল শূন্যতার সৃষ্টি হল।

 

 

সিনেমাতে অভিনয় করলেও আজীবন দাপটের সঙ্গে মঞ্চে অভিনয় করেছেন স্বাতীলেখা সেনগুপ্ত।  'নান্দীকার' নাট্যদলের অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা ছিলেন তিনি।  'মাধবী', 'পাতা ঝরে যায়', 'পাঞ্চজন্য', 'নাচনি'-র মতো বহু বিখ্যাত নাটকে আলোড়ন ফেলেছিল তার অভিনয়। দীর্ঘ সময় যুক্ত ছিলেন নাট্য আন্দোলনের সঙ্গে। ভারতীয় থিয়েটারে 'সঙ্গীত নাটক আকাদেমি পুরস্কার', 'নাট্য আকাদেমি পুরস্কার', 'ওয়েস্ট বেঙ্গল থিয়েটার জার্নালিস্টস অ্যাসোসিয়েশন অ্যাওয়ার্ড' সহ বহু সম্মান পেয়েছেন স্বাতীলেখা সেনগুপ্ত।

 

 

বিমলায় অভিনয়ের পর থেকেই সৌমিত্র-স্বাতীলেখা জুটিকে মনে ধরেছিল দর্শকদের। দীর্ঘ ৩১ বছর পরে সেই সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে পর্দায় ফিরেছিলেন স্বাতীলেখা। শিবপ্রসাদ মুখোপাধ্যায় এবং নন্দিতা দত্তর পরিচালনায় শেষবয়সেও  সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে জুটি বেঁধে 'বেলাশেষে' সিনেমাতে অভিনয় করেছেন স্বাতীলেখা। দীর্ঘ এতগুলো বছর পরেও সৌমিত্র-স্বাতীলেখার জমাট রসায়ন এতটাই আপ্লুত করেছিল দর্শকদের যে ফের 'বেলাশুরু' ছবিতেও একসঙ্গে অভিনয় করেছিলেন এই জুটি। কিন্তু ছবি মুক্তির আগে  না ফেরার দেশে চলে গেলেন নায়ক-নায়িকা। গত নভেম্বর সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের মৃত্যু নাড়িয়ে দিয়েছিল বিশ্বভুবনকে। ঠিক কয়েকমাসের মধ্যেই বুধবার চলে গেলেন স্বাতীলেখা। শেষ থেকে শুরুর আগেই তারাদের দেশে সত্যজিতের বিমলা।

Follow Us:
Download App:
  • android
  • ios