তিন কূলে কেউ নেই শোভারানীর। বাড়ির পরিচারিকাটি বেশ 'দিদা-দিদা' করে। তাই তো অতো বাড়ি দখলের জন্য কেউ এলেই মেয়েটিই বারবার শোভারানীকে রক্ষা করতে এগিয়ে আসে। নিষ্পাপ-নির্দোষ এই মহিলাকে তবুও কে বা কারা যেন খুন করে দিয়ে চলে গেল। দেড় মিনিটের টিজার জুড়ে প্রায় সমস্ত রকমের রহস্য-রোমাঞ্চ জাগিয়ে তুলেছেন পরিচালক ইন্দ্রদীপ দাশগুপ্ত। 

আরও পড়ুনঃহোলির রঙই এই ছবিগুলোর পরিচয়, রইল বলিউডের সেরা দশ গানের খোঁজ

আরও পড়ুনঃশ্যাম বেনেগলের পরিচালনায় নুসরত, শেখ হাসিনার চরিত্রে চমক

'আগন্তুক' ছবির টিজারে পাওয়া গেল এক নয়া সোহিনিকে। অভিনেত্রী সোহিনি সরকারক অভিনয় করছেন শোভারানীর বসুর চরিত্রে। বিপরীতে রয়েছেন আবির চট্টোপাধ্যায়। ছবির গল্প অনুযায়ী, শোভারানী যে বাড়িতে থাকে তা প্রয়োজনের তুলনায় বেশ বড়ো। বৃদ্ধা একাই বলেই তাঁর বাড়ির অন্যান্য ঘরগুলিতে ভারাটে থাকে। তাদের অধিকাংশেরই নজর শোভারানীর সম্পত্তির উপড়। টিজারে ঝলক পাওয়া গিয়েছে ভারাটে এবং প্রোমোটারদের সঙ্গে শোভারানীর নিত্যদিনের ঝামেলা। সেই কারণেই কি খুন হলেন তিনি? এই প্রশ্নই দানা বেধেছে দর্শকদের মনে। 

 

 

আবির চট্টোপাধ্যায় রয়েছেন নিশিথ বসু, শোভারানীর স্বামীর চরিত্রে। শোভার খুন ছাড়াও প্রশ্ন জাগছে আরও একটি জিনিস নিয়ে, নিশিথ কোথায়? টিজারের শেষে সিড়ি দিয়ে উঠতে দেখা গিয়েছে একজন মানুষকে। কে ইনি, যাকে আঁতকে উঠছেন আরও একজন। রহস্য মানেই টানটান উত্তেজনা। দেড় মিনিটের টিজারেই যদি পরিচালক দর্শকদের মনে এতগুলো প্রশ্ন জাগাতে পারে তাহলে ছবি মুক্তি পেলে কী হবে, এই ভাবতে বসেছে নেটিজেনরা। 

আরও পড়ুনঃকেদারনাথ অভিনেত্রী এবার বারাণসীতে, সারার সোশ্যাল মিডিয়ায় গঙ্গা আরতির ছবি

নেটদুনিয়ায় ইতিমধ্যে সারা ফেলে দিয়েছে ছবির টিজার। তার চেয়েও বেশি সারা ফেলেছে সোহিনির লুক। বৃদ্ধা হিসেবে সোহিনিকে চেনা ভার হয়ে উঠেছে। এ বিষয় অবশ্যই মেনকআপ আর্টিস্টের প্রশংসা না করে থাকা যায় না। তবে বৃদ্ধার চরিত্রে সোহিনির অভিনয় অনবদ্য। প্রসঙ্গত, ছবিতে আবির, সোহিনির পাশাপাশি দেখা যাবে পদ্মনাভ দাশগুপ্ত, দামিনী বেনি বসু, পায়েল মুখোপাধ্যায়, মৌসুমি সান্যাল, সুজন নীল মুখোপাধ্যায়, সিধু।