আজ ২২শে শ্রাবণ। বাঙালির কাছে এক বিশেষ দিন। কারণ এই দিনে বাঙালি হারিয়েছিল তাদের কবিগুরুকে। তবে, এবারের ২২শে শ্রাবণের সকালটা একটু অন্যভাবেই শুরু হয়েছে। মুখভার করা আকাশ থেমে থেকে থেকে অঝোর বারিধারায় ভরিয়ে দিচ্ছে চরাচর। আর সেই বর্ষণস্নাত হয়েই মানুষ আজ মেতেছে কবিগুরু স্মরণে। কলকাতায় জোড়াসাঁকো ঠাকুরবাড়়িতে সকাল থেকেই বৃষ্টি মাথাায় ভিড় করেছেন বহু রবীন্দ্রভক্ত। সাহিত্য জগত থেকে চলচ্চিত্র জগত, বাংলা ও বাঙালি বারবার ঋদ্ধ হয়েছে রবি দর্শনে। তাঁর রচনায় দশকের পর দশক ধরে সমৃদ্ধ টলিউড। চিত্রনাট্য থেকে গান, অনবদ্য তাঁর রচনায় আজও বিহ্বল সকলেই। তাই আজ আরও একবার ফিরে দেখা বাংলা চলচ্চিত্র জগতের সেরা কয়েকটি ছবি, যার আকর্ষণের মূলেই ছিল রবীন্দ্রসঙ্গীত। 

আলোঃ তরুণ মজুমদার পরিচালিত ছবি আলো মুক্তি পেয়েছিল ২০০৩ সালে। সেই ছবির পরতে পরতে জড়িয়ে ছিল রবীন্দ্রসঙ্গীত। বিভূতি ভূষণ বন্দ্যোপাধ্যায়ের ছোট গল্প অবলম্বনে তৈরি এই ছবির প্রতিটা গানই ছিল রবীন্দ্রসঙ্গীত। 
চাঁদের বাড়িঃ পরিচালক তরুণ মজুমদারের এই ছবিতে ব্যবহার করা হয়েছিল রবীন্দ্র সঙ্গীত। রবীন্দ্রনাথের লেখা গল্পে তৈরি এই ছবির গান আজও অনবদ্য।

দাদার কীর্তিঃ ১৯৮০ সালে মুক্তি পেয়েছিল এই ছবি। এই ছবিতেও পরিচালকের ভুমিকায় ছিলেন তরুণ মজুমদার। শীর্ষেন্দু বন্দ্যোপাধ্যায়ের লেখা গল্প অবলম্বনে তৈরি এই ছবি। এখানেও এক বিশেষ ভুমিকা নিয়েছিল রবীন্দ্র সঙ্গীত।

ভালোবাসা ভালোবাসাঃ তরুণ মজুমদার পরিচালিত এই ছবিতে জুটি বেঁধেছিলেন তাপস পাল ও দেবশ্রী রায়। শিবাজি চট্টোপাধ্যায়ের গলায় এই ছবিতে রয়েছে বেশ কয়েকটি গান, যা আজও সকলের স্মৃতিতে তরতাজা।

চোখের বালিঃ ঋতুপর্ণ ঘোষ পরিচালিত ছবি চোখের বালি তৈরি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের লেখা গল্প অবলম্বনে। সেই  ছবিতেই রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের গান এক বিশেষ জায়গা করে নেয়। 

নৌকাডুবিঃ রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের লেখা গল্প নৌকাডুবি অবলম্বনে তৈরি এই ছবি। এই ছবির এক বিশেষ আকর্ষণ ছিল রবীন্দ্রসঙ্গীত। পরিচালক বেশ কয়েকটি জায়গায় রবীন্দ্রসঙ্গীতের সুরও ব্যবহার করেছিলেন। 
 
ঘরে বাইরেঃ ১৯৮৪ সালে মুক্তি পেয়েছিল এই ছবি। ১৯১৬ সালে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর রচিত গল্প অবলম্বনে তৈরি এই ছবি। পরিচালনায় ছিলেন সত্যজিৎ রায়। এই ছবিতেও রবীন্দ্রসঙ্গীত এক বিশেষ জায়গা দখল করে নেয়।