ভালো নেই অভিনেতা সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়। এক কথায় বলতে গেলে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছেন তিনি। গত ৪৮ ঘণ্টায় ক্রমেই অবনতীর দিকে এগিয়েছে তাঁর স্বাস্থ্যের অবস্থা। যা চিন্তা বাড়াচ্ছে চিকিৎসরদের। আইটিইউ থেকে তাঁকে দেওয়া হয়েছিল ভেন্টিলেনশনে। কিন্তু সেখানেও খুব একটা উন্নতি না ঘটলে এবার সেই সিদ্ধান্তও পাল্টানোর পথে চিকিৎসকেরা। এক মেডিকাল বোর্ড বসিয়ে পর্যবেক্ষণে রাখা হচ্ছে অভিনেতাকে। 

করোনায় আক্রান্ত হওয়ার পর ৬ অক্টোবর এক বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয় সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়কে। বর্তমানে গায়ে জ্বর। তাই আরও একবার করানো হবে কোভিড টেস্ট। এখন তাঁকে রাখা হয়েছে বাইপাপ ভেন্টিলেশন। সেখান থেকে বের করে ইনভেসিভ ভেন্টিলেশনে দেওয়ার সিদ্ধান্ত। তবে কখন দেওয়া হবে তা এখনও স্থির করে ওঠেননি চিকিৎসকেরা। কারণ চিন্তা বাড়াচ্ছে তাঁর শারীরিক অবস্থা।

ইনভেসিভ ভেন্টিলেশনে দেওয়া মানে শরীরে অনেকবেশি পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া হওয়ার আশঙ্কা। এ থেকে সমস্যা আরও বাড়তে পারে। তাঁর বয়সের কথা মাথায় রেখে চিকিৎসকেরা ভাবছেন, তিনি এই ভেন্টিলেশন সহ্য করতে পারবেন কি না। পাশাপাশি সোডিয়াম এবং পটাসিয়াম-এর  ভারসাম্যের সমস্যা এবার ধরা পড়েছে। তাই কড়া নজরেই রাখা হয়েছে এখন অভিনেতাকে।