সঙ্কটমুক্ত বলা যাবে না। তবে গত দুইদিনের তুলনায় বিশিষ্ট অভিনেতা সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের শারীরিক অবস্থা এখন অনেকটাই ভালো এমনটাই জানাচ্ছেন চিকিৎসারত ডাক্তাররা। এখনও উদ্বেগে রেখেছে বর্ষিয়ান অভিনেতার শরীরে সোডিয়ামের মাত্রা। তবে এই একটি বিষয় ছাড়া তাঁর অন্যান্য সব খবরই ভালো বলা যায়। সবচেয়ে বড় কথা রাতেখুব ভালো ঘুম হয়েছে তাঁর। ডাক্তারি পরিভাষায় 'স্টেবল স্লিপ'।

দুদিন আগেই তাঁকে বাইপ্যাপ-এর সহায়তা দিতে হয়েছিল। কিন্তু, মঙ্গলবার রাত থেকে একেবারে স্বাভাবিকভাবেই শ্বাসপ্রশ্বাস নিচ্ছেন তিনি, বুধবার সকালের বুলেটিনে এমনটাই জানিয়েছেন ডাক্তাররা। এমনকী তাঁর শারীরিক অবস্থা দেখে মঙ্গলবার রাতেই তাঁকে ভেন্টিলেশনে দেওয়ার সিদ্ধান্তও বদলে ফেলা হয। আপাতত ননরিব্রিদার মাস্ক-এর সাহায্য়ে তাঁকে মিনিট প্রতি ১০ লিটার হারে অক্সিজেন দেওয়া হচ্ছে। হৃৎস্পন্দনের হার, রক্তচাপ-সহ অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ প্য়ারামিটারগুলিও স্বাভাবিক রয়েছে।

সেইসঙ্গে, ধীরে ধীরে কোভিড বাদে শরীরে যে অন্যান্য সংক্রমণ ছিল, সেগুলি সেড়ে ওঠার ইঙ্গিত পাওয়া গিয়েচে। মূত্রনালীর যে সংক্রমণ ছিল, সেই ক্ষেত্রেও ওষুধে কাজ দিচ্ছে। চিকিৎসায় সাড়া দিচ্ছেন সৌমিত্র।

তবে এখনও চিকিৎসকদের ভাবাচ্ছে বর্ষিয়ান অভিনেতার শরীরের সোডিয়ামের মাত্রা। পটাশিয়াম ও ম্যাগনেশিয়ামের মাত্রা ধীরে ধীরে স্বাভাবিক হয়ে গেলেও এখনও বেশ বেশি রয়েছে সোডিয়ামের মাত্রা। সেইসঙ্গে তাঁর শরীরে দুটি কারণে এনসেফালোপ্যাথি বা স্নায়বিক সমস্যা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন ডাক্তাররা। একটি কোভিড সংক্রমণের কারণে, অপরটি এই সোডিয়ামের মাত্রা নিয়ন্ত্রণে না থাকায়। এই অবস্থায় বুধবার ফের একবার সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়-এর বিভিন্ন শারীরিক পরীক্ষার রিপোর্টের মূল্যায়ন করে পরবর্তী পদক্ষেপ নিয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা।