যত সময় এগোচ্ছে ততই যেন পরিস্থিতি আরও সঙ্কটজনক হচ্ছে ফেলুদার। করোনা কাবু করেছে বর্ষীয়ান অভিনেতাকে। দীর্ঘ কয়েকদিন ধরেই করোনার সঙ্গে লড়াই চালিয়ে যাচ্ছেন বর্ষীয়ান অভিনেতা সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়। গত সোমবারই অভিনেতার করোনা রিপোর্ট পজিটিভ আসে।পরের দিন সকালেই বেলেভিউ হাসপাতালে ভর্তি করা হয় অভিনেতাকে। টানা আটদিন ধরে চলছে জীবন-মৃত্যুর লড়াই। অদম্য ফাইটিং স্পিরিট নিয়ে লড়াই চালিয়ে যাচ্ছেন বাঙালির ফেলুদা। ফের সোমবার শারীরিক অবস্থার অবনতি হয়েছিল সৌমিত্রর। শ্বাসের সমস্যার কারণেই বাইপ্যাপ সাপোর্টও দেওয়া হয়েছিল সৌমিত্রকে।

আরও পড়ুন-স্লিভলেস গ্লিটারস শিফনে 'হটনেস বম্ব', কোঁকড়ানো চুলের হটকে লুকে চেনা দায় 'শ্যামা'কে...

এই উৎকন্ঠার মধ্যেই সোশ্যাল মিডিয়ায় অভিনেতার শারীরিক অবনতি নিয়ে গুজব ছড়িয়ে যায়। সৌমিত্র আর নেই,  একটা অধ্যায়ের শেষ, এই ধরনের নানা পোস্ট গতকাল দুপুর থেকেই সোশ্যাল মিডিয়ায় দেখা যেতে থাকে। সত্যি মিথ্যা যাচাই না করেই অধিকাংশ মানুষ নিজেদের স্ট্যাটাসে 'রিপ' বার্তাও পোস্ট করতে থাকেন। মুহূর্তের মধ্যে ফেসবুক-হোয়াটসঅ্যাপে ভাইরাল হয়ে যায় বর্ষীয়ান অভিনেতা সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের মৃত্যুসংবাদ। এমনকী হাসপাতালে ভিতরে শুয়ে থাকা সৌমিত্রর ছবিও ফাঁস হয়ে যায়। সোশ্যাল মিডিয়া থেকে সংবাদমাধ্যম সর্বত্রই ছড়িয়ে যায় এই ছবি। সৌমিত্রকে নিয়ে এই ভুঁয়ো খবরে রীতিমতো ক্ষুব্ধ অভিনেতার পরিবার।

আরও পড়ুন-রাতে ভালো ঘুমোলেন সৌমিত্র, মোটের উপর সুখবর দিলেন চিকিৎসকরা...

সৌমিত্র কন্যা পৌলমী বসু গতকাল রাতে বাবাকে নিয়ে ওঠা গুজবের ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন সোশ্যাল মিডিয়ায়। পৌলমী জানিয়েছেন, ' আমার বাবার শারীরিক অবস্থা সামান্য হলেও উন্নতি হয়েছে। এহেন পরিস্থিতিতে আইসিইউ-তে চিকিৎসারত অবস্থায় ওনার ছবিও আমাদের অনুমতি ছাড়াই  সোশ্যাল মিডিয়ায় ব্যাপক হারে শেয়ার করা হচ্ছে। দয়া করে ওনাকে সম্মান দিয়ে গোপনীয়তা বজায় রাখুন। এটা ওনার প্রাপ্য। প্লিজ এই ছবি শেয়ার করা বন্ধ করুন। কোনওরকম বাজে গুজবে কান দেবেন না।'

Amidst this time of huge anxiety over the health of my Covid-afflicted father, Soumitra Chatterjee, we are extremely...

Posted by Poulami Bose on Tuesday, 13 October 2020

 

বর্তমানে কোভিড এনসেফেলোপ্যাথিতে ভুগছেন ৮৫ বছর বয়সী অভিনেতা। ইতিমধ্যেই দ্বিতীয়বার ফের প্লাজমা থেরাপি দিতে হয়েছে সৌমিত্রকে।  এর আগেও একবার প্লাজমা থেরাপি করা হয়েছিল অভিনেতাকে। শনিবার প্রথম দফায় প্লাজমা থেরাপি দেওয়া হয় অভিনেতাকে, তারপরও রবিবার পরিস্থিতির আবারও অবনতি হয়। এবং রবিবারও দ্বিতীয় দফায় তাঁর প্লাজমা থেরাপি চলে। সৌমিত্রর চিকিৎসায় ১৬ সদস্যের একটি মেডিক্যাল টিম গঠন করা হয়েছে, যেখানে মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশে রয়েছেন দুইজন সরকারি হাসপাতালের চিকিৎসকও। প্রতি মুহূর্তেই সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের শারীরিক পরিস্থিতি মনিটার করছেন চিকিৎসকেরা। সৌমিত্রর প্রস্রাবেও ই-কোলাই পাওয়া গিয়েছে। দেহে সোডিয়ামের মাত্রাও বেড়েছে। তার সুস্থ হওয়ার পথে বাধা হয়ে দাঁড়াচ্ছে সেই কো-মর্বিডিটি এবং বয়স।