২০২০ সালের মত অভিশপ্ত বছর বোধহয় আর হয় না। ইরফান খান, ঋষি কাপুর, সাজিদ খান এবার সুশান্ত সিং রাজপুত। একের পর এক বলিউড শিল্পী, অভিনেতাদের মৃত্যুর খবরে ভরে চলেছে সংবাদমাধ্যম। আরও কী কী যে দেখতে হবে তা কল্পনা করতেও ভয় পাচ্ছে সাধারণ মানুষ। আত্মহত্যার কারণে মৃত্যু হয় সুশান্তের। ঘর থেকে অভিনেতার ঝুলন্ত দেহ পরিচারিকায় প্রথম দেখে বলে জানা গিয়েছে। সিনেজগতের সকলে ব্যক্তিত্বের পাশাপাশি কেউই মেনে নিতে পারছে না খবরটা। তবে আক্ষরিক অর্থে বাকরুদ্ধ যাকে বলে তাই অবস্থা হয়েছে অঙ্কিতা লোখান্ডের। 

আরও পড়ুনঃ'সুশান্ত আত্মহত্যা করতে পারে না, এর পিছনে অন্য কারণ আছে', মুখ খুললেন অভিনেতার ঘনিষ্ঠ বন্ধু

তিনি খবরটি প্রথমে জানতেনই না। আর পাঁচটা দিনের মতই নিজের কাজে ব্যস্ত ছিলেন তিনি। হঠাৎই এক সংবাদমাধ্যমের ফোনে তিনি, 'কী' বলে ফোন রেখে দেন। তাঁর প্রতিক্রিয়ার নেওয়ার জন্য ফোন করা হয়েছিল সেই সংবাদমাধ্যম থেকে। খবরটি শুনেই ফোন রেখে দেন বা হাত থেকে পড়ে যায় বলেই জানা যাচ্ছে। তিনি আর পাঁচজনের মত খবরটি বিশ্বাস করতে পারেননি। ২০১৬ সালে বিচ্ছেদ ঘটে তাঁদের। সুশান্তের সঙ্গে ব্রেক আপের পর প্রথমদিকে কথাবার্তা না থাকলেও পরের দিকে কর্ডিয়াল সম্পর্ক রেখেছিলেন অঙ্কিতা। বন্ধুর মতই দেখা হলে হাই-হ্যালোতেই কাটত তাঁদের সাক্ষাৎ।

আরও পড়ুনঃমায়ের মৃত্যুর পর মেধাবী ছাত্রের অধঃপতন, তখন হাল না ছাড়লেও আজ হেরে গেলেন সুশান্ত সিং রাজপুত

তবে প্রাক্তন প্রেমিকের এই আকস্মিক মৃত্যু মেনে নিতে পারছেন না তিনি। পবিত্র রিশতা ধারাবাহিকে স্বামী-স্ত্রীর ভূমিকায় অভিনয় করেছিলেন অঙ্কিতা-সুশান্ত। সেখান থেকেই তাঁদের প্রেমালাপের শুরু। ধারাবাহিকে অভিনয় করতে করতেই সুশান্ত বলিউডের প্রস্তাব পান। ধারাবাহিকটি মাঝপথে ছেড়েই বলিউডে নিজের জায়গা করে নেন। প্রথম ছবিতে সকলের নজর কাড়েন তিনি। অন্যদিকে ধীরে ধীরে অঙ্কিতার সঙ্গে সম্পর্কে চিড় ধরতে থাকে তাঁর। বিয়ে বন্ধনে আবদ্ধ হতে আর মাত্র কয়েকটি পদক্ষেপ দূরে ছিলেন তাঁরা। তাঁর আগেই সুশান্তের তরফ থেকে বিচ্ছেদের প্রসঙ্গ ওঠে। সেই সময় সম্পর্ক তিক্ততায় পরিণত হলে আজ সুশান্তের মৃত্যুতে বাকরুদ্ধ অঙ্কিতা। কারও সঙ্গে কথা বলতে নারাজ তিনি।