২০১৮ সালে মিটু ঝড় আছড়ে পড়েছিল গোটা হলিউডে। সেই আন্দোলন ছড়িয়ে পড়েছিল গোটা বলিউড জুড়ে। বহু অভিনেতা অভিনেত্রী থেকে শুরু করে পরিচালক, প্রযোজক কর্মক্ষেত্রে যৌন হেনস্তা নিয়ে অকপটে মুখ খুলেছিলেন। শুধু তাই নয়, প্রত্যেকের নামও প্রকাশ্যে এনেছিলেন। কেউ কেউ আবার কাস্টিং কাউচ নিয়েও মুখ খুলেছিলেন। বলিউড অভিনেত্রী তনুশ্রী দত্তও অভিনেতা নানা পাটেকরের বিরুদ্ধে যৌন হেনস্তার অভিযোগ এনেছিলেন। যা নিয়ে রীতিমতো উত্তাল হয়েছিল সোশ্যাল  মিডিয়া। ওই ঘটনার পর থেকেই একের পর এক মডেল অভিনেত্রীরা মি টু নিয়ে সরব হয়েছেন। সম্প্রতি বলিউডের বিখ্যাত পরিচালক সাজিদ খানের বিরুদ্ধে মি টু অভিযোগ এনেছেন মডেল অভিনেত্রী পলা।

আরও পড়ুন-'কিশোরী বয়সেই ড্রাগের নেশায় আসক্ত, বেছে নিয়েছিলেন মৃত্যুকেও', ভিডিওতে সর্বনাশ ডেকে আনলেন কঙ্গনা...

সম্প্রতি নিজের সোশ্যাল মিডিয়ায় মি টু নিয়ে সরব হয়েছেন অভিনেত্রী। ছবিতে কাজ দেওয়ার নাম করেই তার সঙ্গে অশ্লীল ব্যবহার করে পরিচালক সাজিদ। তিনি দাবি করেন হাউজফুল ছবিতে অভিযোগের সুযোগ দেওয়ার কথা বলেই তার সঙ্গে নোংরামি করেন সাজিদ। বয়স মাত্র ১৭ বছর। তখনই সাজিদ খান তার শরীরে স্পর্শ করে। শুধু তাই নয়, অশ্লীল ও নোংরা ব্যবহার করতে শুরু করে।  তিনি আরও জানিয়েছেম মানসিক দিক দিয়েও পুরোপুরি বিধ্বস্ত করে দিয়েছেন সাজিদ।

 

 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 

🙏🏼 Before democracy dies and there is no freedom of speech anymore I thought I should speak !

A post shared by Dimple paul (@paulaa__official) on Sep 9, 2020 at 5:18am PDT

 

তবে পলা শুধু একা নন, একাধিক মেয়েদের সঙ্গেই এমন নোংরা ব্যবহার করেছেন পরিচালক সাজিদ খান। নগ্ন হলেই মিলবে কাজ। প্রকাশ্যেই নগ্ন হতে বলেন তাকে,এমনই অভিযোগ দায়ের করেন অভিনেত্রী। সেই সময় মুখ খুলতে ভয় পেলেও এখন তিনি মুখ খুলেছেন। কারণ বলিউডে মি টু নিয়ে এর আগেও একাধিক তারকা মুখ খুলেছেন। সাজিদ খানের নোংরা মুখোশটা টেনে খুলে দিতে চান পলা। এই প্রথমই নয়, আগে সাজিদের বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগ উঠেছে। অক্ষয় কুমারও চাননি তার সঙ্গে কাজ করতে।