সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুতে মাদকযোগ থাকায় ৪ সেপ্টেম্বর নার্কোটিকস কন্ট্রোল ব্যুরো গ্রেফতার করে রিয়া চক্রবর্তীর ভাই শৌভিক চক্রবর্তীকে। পাশাপাশি গ্রেফতার করা হয়েছিল সুশান্তের বাড়ির ম্যানেজার স্যামুয়েল মিরান্ডাকেও। দীর্ঘদিনের দীর্ঘক্ষণের জেরার পরই গ্রেফতার করা হয়েছিল এই দু'জনকে। অবশেষে তিন মাস পর জামিন পেলেন শৌভিক। মুম্বইয়ের বিশেষ আদালতে বুধবার তাঁর জামিনের আবেদন মঞ্জুর করা হয়। 

রিয়াও গ্রেফতার হয়েছিলেন তবে তিনি জামিন পেয়েছেন আগেই। সুশান্তের মৃত্যুতে এনসিবি-র হস্তক্ষেপের পরই আরও গভীরভাবে নাম জড়ায় রিয়া ও শৌভিকের। সুশান্তের বান্ধবী রিয়ার বিরুদ্ধে অভিযোগ ছিল সুশান্তকে মাদক দেওয়ার। নানা অভিযোগ ও হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাটের ভিত্তিতেই গ্রেফতার করে নার্কোটিকস কন্ট্রোল ব্যুরোর গোয়েন্দারা। এই তিন মাস মুম্বইয়ের তালোজা জেলই ছিলেন শৌভিক।

আরও পড়ুনঃ'আমি একজন রূপারন্তকামী', আসল পরিচয় সামনে এনে প্রশংসা কুড়োলেন অস্কার মনোনীত এলিয়ট পেইজ

 

রিয়া ছিলেন বাইকুল্লা জেলে। তিনি জামিন পেয়েছিলেন ৭ অক্টোবর। সেই সময় একাধিকবার শৌভিকের জামিনের আবেদন জানোন হলেও তা খারিজ হয়ে যায়। তবে জানা যাচ্ছে জামিন পেতেই যে দুই ভাই-বোন নিশ্চিন্তে থাকতে পারবেন, তেমনটা নয়। ম্যাজিস্ট্রেট কোর্ট, এনডিপিএস আদালত রিয়া ও শৌভিকের জামিন পূর্বে খারিজ করে, যার পর বম্বে হাইকোর্টে জামিনের আর্জি জানায় রিয়া এবং শৌভিক।