আগামী ২০ সেপ্টেম্বর থেকেই বিগ বস ১৪-এর নতুন সিজন শুরু হতে চলেছে। ফের ধামাকাদার শো নিয়ে হাজির হচ্ছেন বলিউডের ভাইজান সলমন খান। লকডাউন শুরু হতেই পানভেলের ফার্মহাউসে রয়েছেন সলমন। সেখান থেকেই একের পর  ভিডিও শেয়ার করে বিনোদনের রসদ জোগাচ্ছেন ভাইজান। জনপ্রিয় রিয়্যালিটি শো বিগ বস নিয়ে দর্শকদের উত্তেজনা সবসময়েই তুঙ্গে। নতুন পর্বের এপিসোড নিয়েও আলোচনা চলছে জোরকদমে। সম্প্রতি ভাইজানের জনপ্রিয় শো নিয়ে বেশ কিছু নতুন তথ্য সামনে এসেছে, যা নিয়ে উত্তাল হয়েছে নেটিজেনরা। সূত্র থেকে জানা গেছিল, ৩ অক্টোবর  থেকে টেলিকাস্ট হবে বিগ বস। কিন্তু  সেই  সিদ্ধান্তে ফের বদল আনলেন বিগবস কর্তৃপক্ষ , যা নিয়ে জোর জল্পনা শুরু হয়েছে।

আরও পড়ুন-গর্ভবতী হয়েও 'বেবিবাম্প' নিয়ে সেক্সি পোজ, রইল করিনা থেকে ঐশ্বর্যর গ্ল্যামারাস হট মুভসের ঝলক...

কী কারণে একের পর এক দিন পিছিয়ে যাচ্ছে এই শো- টেলিকাস্টের তা জানার জন্যই মুখিয়ে রয়েছে দর্শক। উত্তেজনা বাড়িয়ে ফের পরিবর্তনেই ফুঁসে উঠছে নেটিজেনরা। তবে করোনার জন্যই যে এমনটা হচ্ছে তা দাবি করছেন একাংশ। কারণ করোনার কারণেই এই শো শুরু হতে অনেকটা দেরি হচ্ছে। বিগবসে মোট ১৬ জন অংশ নেন। তার মধ্যে ১৪ জনই সেলেব। এই বছরও কারা থাকবেন বিগ বসে, তা নিয়েও জোর জল্পনা শুরু হয়েছে বি-টাউনের অন্দরে। ইতিমধ্যেই কারা কারা বিগবসের বাড়িতে থাকবেন তাও ঠিক হয়ে গেছে। শুধু তাই নয়, কারা কারা থাকতে চলেছেন তাদের কয়েকজনের নামও ফাঁস হয়ে গিয়েছে। সূত্র থেকে জানা গেছে,মধুচক্র থেকে যৌন নির্যাতনে অভিযুক্ত রাধে মা নাকি এবছর থাকতে চলেছেন বিগ বস ১৪-তে। যা নিয়ে জোর জল্পনা শুরু হয়েছে।

আরও পড়ুন-৫০ জন বন্দীর সঙ্গে মাটিতে শুয়েই কাটল প্রথম রাত, 'বাইকুল্লা' জেলে কী ছিল রিয়ার মেনুতে...

করোনাভাইরাসের কারণে শোয়ের ফরম্যাটে অনেক পরিবর্তন এসেছে। আর তার কারণেই বাজেট কমাতে হচ্ছে নির্মাতাদের। শোনা গিয়েছিল। করোনার কোপে পারিশ্রমিক কমাতে বাধ্য হচ্ছেন ভাইজান। গত বছর বিগ বস ১৩ -সিজনের জন্য প্রতি সপ্তাহ পিছু ১৩ কোটি টাকা পারিশ্রমিক নিতেন সলমন। এমনকী একই দিনে দুটি এপিসোডেরও শুট করেছিলেন। সেদিক থেকেও সাড়ে ৬ কোটি টাকা হেঁকেছিলেন সলমন। তবে এই বছর তিনি ১৪ কোটি টাকা পারিশ্রমিক নিচ্ছেন। এই বিশাল অঙ্কের টাকা নেওয়ার জন্য তিনি সমালোচিতও হয়েছেন। অন্যদিকে কোটি টাকা পারিশ্রমিকেও বিগ বসে আসতে চাইছেন না তারকারা।  করোনা ভাইরাসের কথা মাথায় রেখেই নিমার্তা নতুন এপিসোডের প্রস্তুতি শুরু করেছেন।সূত্র থেকে জানা গেছে, এবার বিগ বসে যা ঘটতে চলেছে তা আগে কখনও ঘটে নি। এই বছর করোনার জেরে কোনওরকম ঝুঁকি নিতে চান না সলমন। এই বছরের শো-য়ের সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হল স্বাস্থ্যবিধি। হাইজিন মানার ক্ষেত্রে আপস করলে তার কোপ পড়তে পারে পারিশ্রমিকেও। এপিসোডের সময়সীমাও কমিয়ে দেওয়া হয়েছে। মাত্র আধ ঘন্টার এপিসোড ৪ অক্টোবর থেকে সাড়ে ১০ টায় দেখানো হবে। তবে ঠিক কী কী ঘটতে চলেছে তা ৪ তারিখের পরই জানা যাবে।