একজনের পর আরও দুজন। বনি কাপুরের বাড়িতে জাঁকিয়ে বসল করোনা ভাইরাস। বাড়ির পরিচারিক চরণ সাহু দুদিন আগেই সংক্রমিত হয়েছেন করোনা ভাইরাসে। তারপরই আরও দুজনের সংক্রমিত হওয়ার খপর প্রকাশ্যে এল। এই নিয়ে মুখ খুলতে নারাজ বনি এবং জাহ্নবী। যে ভাইরাসের ভয় বহু আগে থেকেই নিজেদের হোম কোয়ারেন্টাইনে রেখেছিলেন জাহ্নবী, এখন সেই ভাইরাসই লকডাউন শুরু হওয়ার দুমাস পর তাঁর বাড়িতে এসে হানা দিল। স্বাভাববিকভাবেই অত্যন্ত ভয় পেয়ে গিয়েছেন অভিনেত্রী। আশঙ্কা ক্রমশ বেড়ে চলেছে। বাড়িতে প্রথম করোনা ভাইরাস সংক্রমিত হওয়া নিয়ে একমাত্র পোস্ট করেছিলেন জাহ্নবী। সোশ্যাল মিডিয়ায় নিজের বাবার পোস্ট শেয়ার করেন অভিনেত্রী। 

আরও পড়ুনঃবলিউডের বিগ ডিভোর্স, ট্যুইটারে 'সত্যতা' হবে ফাঁস, নওয়াজের স্ত্রী আলিয়ার ট্যুইট ঘিরে জল্পনা

তিনি লেখেন বাড়িতে থাকা ছাড়া আর কোনও উপায় নেই। গৃহবন্দি থাকলেই বাঁচতে পারবে সকলে। এই ছিল জাহ্নবীর বার্তা। চরণের বয়স মাত্র তেইশ। জানা যাচ্ছে দিন কতক ধরে অসুস্থবোধ করেছিলেন চরণ। বনি তাঁকে টেস্টের জন্য পাঠান এবং আইসোলেশনেও রাখেন। টেস্টের পরই জানা যায় চরণ করোনা পজিটিভ। বনি কাপুর মুম্বইয়ের লোখান্ডওয়ালা কমপ্লেক্সের গ্রীন একার্সে থাকেন। সঙ্গে থাকেন দুই মেয়ে জাহ্নবী এবং খুশি। প্রযোজক জানিয়েছে আপাতত বাড়ির কোনও সদস্য এবং অন্যান্য পরিচারিক এবং পরিচারিকার মধ্যে করোনার লক্ষণ দেখা দেয়নি। তবুও সতর্ক রয়েছেন তাঁরা। যা যা করণীয় সবই করছেন। রিপোর্ট আসার পর সোসাইটিকে তৎক্ষণাৎ জানানো হয়। 

 

 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 

Staying at home is still the best solution we have. Stay safe everyone 🙏🏻

A post shared by Janhvi Kapoor (@janhvikapoor) on May 19, 2020 at 5:07am PDT

 

আরও পড়ুনঃবলিউড অভিনেত্রী হয়ে হিন্দি শব্দে লিপ সিঙ্ক করতে পারেন না জ্যাকলিন, বিস্ফোরক সোনা মহাপাত্র

বিএমসির কাছে খবর পাঠাতেই চরণকে নিয়ে যাওয়া হয় কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে। শুরু হয়ে গিয়েছে তাঁর চিকিৎসাও। বনি কাপুর জানিয়েছেন, "আমি এবং আমার দুই সন্তান সহ বাড়ির প্রত্যেক কর্মচারীরা সুস্থ আছে। এখনও পর্যন্ত কোনও লক্ষণ তাদের মধ্যে দেখা যায়নি। বিএমসির দেওয়া সমস্ত নিয়ম আমরা মেনে চলছি। মহারাষ্ট্রের সরকারের কাছে আমরা কৃতজ্ঞ। ধন্যবাদ জানাচ্ছি। আশা করছি চরণ শীঘ্রই সুস্থ হয়ে আমাদের কাছে ফিরে আসবে।" ক্রমশ বেড়ে চলেছে করোনার প্রকোপ। আক্রান্তের সংখ্যায় ভারত টেক্কা দিচ্ছে চীন ও ইতালিকে। এক লাখ ছাড়িয়েছে সংক্রমণের সংখ্যা। মৃতের সংখ্যাও বেড়ে চলেছে ক্রমশ। 

আরও পড়ুনঃসাবধান, করোনা আতঙ্কের মধ্যে এই কাজ করলেই হতে পারে জেল

আরও পড়ুনঃকী করে করোনার হাত থেকে রক্ষা করবেন আপনার বাড়ির বয়স্ক সদস্যদের, রইল তারই টিপস

আরও পড়ুনঃশরীরে কীভাবে থাবা বসায় করোনা, জানালেন বিশেষজ্ঞরা