করোনা রুখতে লকডাউন আনলক ২ চলছে। এহেন পরিস্থিতিতে করোনা মোকাবিলায় ত্রস্ত হয়ে উঠেছে গোটা দেশ। লকডাউনের জেরে বহু ছবির  মুক্তি বন্ধ হয়েছে। আবার বহু ছবির শুটিংও বন্ধ হয়ে গেছে। সঙ্কট পরিস্থিতিতে ছবি মুক্তি নিয়ে ওটিটি প্ল্যাটফর্মকেই বেছে নিয়েছেন ছবি নির্মাতারা। সুজিত সরকারের বহু প্রতীক্ষিত ছবি  'গুলাবো সিতাবো'ও মুক্তি পেয়েছিল ওটিটি প্ল্যাটফর্মে। ছবিটি কয়েকদিনেই নেটিজেনদের প্রশংসা কুড়িয়েছে। এবার সেই পথেই হাঁটতে চলেছে বিদ্য়ার 'শকুন্তলা দেবী'।

আরও পড়ুন-চিরতরে ছেড়ে চলে গেল প্রাক্তন প্রেমিক, আত্মার শান্তিতে স্মরণসভায় অঙ্কিতা...

অনু মেনন পরিচালিত  'শকুন্তলা দেবী' ও অ্যামাজন প্রাইমে শীঘ্রই মুক্তি পেতে চলেছে। ছবি মুক্তির কথা শোনা গেলেও মুক্তির দিনক্ষণ জানা যায় নি।  এবার প্রকাশ্যে এল মুক্তির তারিখা। ছবির মুখ্য চরিত্র বিদ্যা বালান নিজেই মুক্তির দিন প্রকাশ্যে এনেছেন। আগামী ৩১ জুলাই ছবিটি অ্যামাজন প্রাইমে মুক্তি পাবে।  তবে কি ডিজিটালে ছবি মুক্তির ট্রেন্ড তৈরি হল বলিউডে, এই প্রশ্নই উঠে আসছে। দেখে নিন বিদ্যার টুইটটি,

 

ঘরোয়া ছাপোসা গৃহবধু থেকে মঙ্গলের বিজ্ঞানী-আবারও তিনি ছক ভেঙে বেরিয়ে এলেন।  বরাবরই ভিন্ন স্বাদের ছবি নিয়ে অনেক বেশি স্বাচ্ছন্দ্য় বোধ করেন তিনি। তাই আবারও নিজেকে একটু অন্য় ভাবে তুলে ধরছেন দর্শকদের মধ্যে। বিস্ময়প্রতিভা গণিত সম্রাজ্ঞী শকুন্তলা দেবীর  বায়োপিকে দেখা যাবে বিদ্যা বালনকে। বেঙ্গালুরুর কন্নড় পরিবারে জন্ম শকুন্তলা দেবীর। মাত্র ৬ বছর বয়সেই মাইসোর বিশ্ব বিদ্য়ালয়ে নিজের সংখ্য়াগণনার ক্ষমতা প্রদর্শন করেন। খাতায় লেখা হোক বা ক্য়ালকুলেটার কিংবা কম্পিউটার বড় অঙ্কের ক্য়ালকুলেশান তিনি মুহূর্তের মধ্য়ে মুখে মুখেই করে ফেলতেন। আর এই কারণের জন্য়ই তাকে মানব ক্য়ালকুলেটার বা মানব কম্পিউটার বলা হয়। শুধু দেশে নয়, বিদেশেও তিনি সমান ভাবে খ্য়াতির শীর্ষে ছিলেন। তার এই অসামান্য় প্রতিভার জন্য় গিনেস বুক অব ওয়র্ল্ড রেকর্ডে তিনি নিজের জায়গা করে নিয়েছেন। সংখ্য়া নিয়ে খেলার পাশাপাশি তিনি জ্য়োতিষচর্চাও করতেন। এর পাশাপাশি বই লিখেছেন জ্য়োতিষ, সমকামিতা নানা বিষয় নিয়ে। তার এই বর্ণময় জীবনকেই সেলুলয়েডের পর্দায় ফুটিয়ে তুলছেন বিদ্য়া বালন। বিদ্যার স্বামীর ভূমিকায় যীশু সেনগুপ্তকে দেখা যাবে।

আরও পড়ুন-'মোটা বয়স্ক বুড়ি বলে অপমান', প্রকাশ্যে আত্মহত্যার হুমকি দিলেন এই জনপ্রিয় অভিনেত্রী...


প্রথমে ছবিটি ৮ মে  মুক্তি পাবার কথা ছিল। তবে লকডাউনের কারণে তা সম্ভব হয়নি। তারপরেই ওটিটি প্ল্যটফর্মেই মুক্তির সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। করোনা মহামারীর কারণেই বেশ কয়েকটি উল্লেখযোগ্য ছবিকে সরাসরি ডিজিটালেই মুক্তির সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। সেই তালিকায় রয়েছে সুজিত সরকার পরিচালিত ছবি 'গুলোবো সিতাবো'। যা মুক্তিও পেয়েছে। এছাড়াও রয়েছে বিদ্যা বালন অভিনীত 'শকুন্তলা দেবী', জাহ্ণবী কাপুরের 'গুঞ্জন সাক্সেনা-দ্য কার্গিল গার্ল', সুশান্ত সিং রাজপুত অভিনীত শেষ ছবি 'দিল বেচারা', অক্ষয় কুমারের 'লক্ষ্মী বম্ব', আলিয়া ভাটের 'সড়ক টু', সহ আরও বেশ কয়েকটি ছবি। যেগুলি প্রতিটিই মুক্তি পাবে ওটিটি প্ল্যাটফর্মে।