সোমবার লন্ডন কিংস কলেজের একটি গবেষণা পত্র প্রকাশিত হয়েছে। সেখানে উঠে এসেছে এত ভয়ঙ্কর তথ্য। সেই তথ্যে বলা হয়েছে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত কোনও রোগী সুস্থ হয়ে ওঠার কয়েক মাসের মধ্যেই হারিয়ে ফেলবে তার প্রতিরোধ ক্ষমতা। আর সেই কারণেই সেই রোগী আবারও আক্রান্ত হতে পারে করোনাভাইরাসে। কিংস কলেজের প্রকাশিত এই গবেষণা পত্র নিয়ে রীতিমত আশঙ্কার মেঘ হিসেবেই দেখছেন বিশেষজ্ঞরা।  কারণ প্রথমে ধারনা করা হয়েছিল হার্ড ইমিউনিটি গড়ে উঠলে রুখে দেওয়া যাবে করোনাভাইরাসকে। বিপুল সংখ্য সংক্রমণ ঘটিয়ে এক সময় রণ ভঙ্গ দেবে করোনা। কিন্তু কিংস কলেজের গবেষণার পর আর হার্ড ইমিউনিতে আস্থা রাখতে পারছেন না বিশেষজ্ঞরা। 

কিংস কলেজের গবেষকদের উদ্দেশ্য ছিল মানুষের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কীভাবে সাড়া দিচ্ছে তা ক্ষতিয়ে দেখা। তাঁরা ৯০ জন করোনা রোগীর ওপর পর্যবেক্ষণ শুরু করেন। আক্রান্তদের রক্ত পরীক্ষা করে দেখা গেছে আক্রান্ত হওয়ার প্রথম কয়েক সপ্তাহ ৬০ শতাংশ রোগীর দেহেই রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কার্যকর থাকে। কিন্তু তারপরই প্রতিরোধ ক্ষমতার অবক্ষয় হতে শুরু করে। সুস্থ হয়ে যাওয়ার তিন মাস পর্যন্ত অ্যান্টিবডি নিজের শরীরে ধরে রাখতে সক্ষম হন মাত্র ১৬.৭  শতাংশ রোগী।  তিন মাস পরে অ্যান্টিবডি না থাকায় আবারও সংক্রমিত হওয়ার আশঙ্কা থেকেই যায়। 

করোনা মোকাবিলায় এবার ভারতে চর্মরোগের ওষুধ হাতিয়ার, বায়োকনের ইটোলিজুমাব জীবনদায়ী বলে দাবি ...

কেলরের মুখ্যমন্ত্রীর মেয়ের বিয়েতে হাজির ছিল সোনা পাচারকারী স্বপ্না সুরেশ, ফ্যাক্ট চেকে ভাইলার ছবি ...
গবেষণায় বলা হয়েছে যতক্ষণ পর্যন্ত মানবদেহে অ্যান্টিবডি থাকবে ততক্ষণ সেই ব্যক্তি প্রতিহত করতে পারবেন মহামারীকে। কিন্তু রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কয়েক মাস পর্যন্ত থাকতে পারে। এই প্রতিরোধ ক্ষমতাই শেষ কথা বলবে না। ইনফ্লুয়েঞ্জা সহ অন্যান্য ভাইরাসের ক্ষেত্রেও এটি কার্যকর। বিশেষজ্ঞরা মরামারী প্রতিহত করার জন্য প্রতিষেধক তৈরির ওপরই জোর দিয়েছেন। ব্রিটেনের ওয়ারউইক বিশ্ববিদ্যালয়ের মলিকিউলার  অঙ্কোলডির অধ্য়াপক লরেন্স ইয়ং বলেছেন একটি একটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ গবেষণা যেটা সার্স কোভ-২এর বিরুদ্ধে অ্যান্টিবডির গুরুত্ব বোঝাতে শুরু করেছে। মহামারী প্রতিহত করতে টিকার গুরুত্বও তুলে ধরা হয়েছে বলেও মনে করেন তিনি। 

গালওয়ানে নিহত সেনাদের শেষকৃত্যের অধিকার দেয়নি চিন, মার্কিন রিপোর্টে প্রকোট স্বজন হারানোদের আর্তি ...