রীতিমত রেকর্ড তৈরি করতে চলছেন হরি শুল্কা। আর কিছুক্ষণের মধ্যে তিনি হয়ে যাবেন করোনাভাইরাসের টিকা গ্রহণকারী প্রথম ভারতী। একটু ভুল হল। তিনি হতে চলেছে বিশ্বের টিকা গ্রহণকারী প্রথম ব্যক্তি। কারণ ব্রিটেনের ইউনাইটেড কিমডম হাসপাতালে তিনি প্রথম ফাইরাজ-বায়োএনটেকের তৈরি করোনা টিকা গ্রহণ করবেন। 


হরি শুক্লা ভারতীয় বংশোদ্ভূত। তিনি জানিয়েছেন করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের সূচনা হচ্ছে। সাধারণ মানুষদের টিকাকরণ করা হচ্ছে। তাঁকে যখন টেলিফোনে একথা জানান হয়েছিল তখন তিনি স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলেছিলেন। আর সেই টিকা কর্মসূচিতে যে তার নাম প্রথম রয়েছে তা জেনেও তিনি সন্তোষ প্রকাশ করেছিলেন। তিনি বলেছেন মহামারির বিরুদ্ধে লড়াইয়ে সামিল হতে পেরে তিনি গর্বিত। তিনি আরও জানিয়েছেন টিকাকরণ কর্মসূচি শুরু হওয়ার অর্থই হল মহামিরর বিরুদ্ধে যুদ্ধ শেষ পর্যায়ে পৌঁছেছে। টিকা গ্রহণে তাঁর কোনও ভয় নেই। তিনি অপেক্ষা করে আছেন কখন তাঁকে টিকা দেওয়া হবে সেই সময়ের জন্য। মহামারির বিরুদ্ধে লড়াইয় করতে পেরে তিনি আনন্দিত বলেও জানিয়েছেন। 

ফাইজারের পর এবার আসরে সেরাম, ভারতে করোনা-টিকা জরুরি ব্যবহারের অনুমতি দাবি .

করোনা আবহে স্বাস্থ্য পরিষেবা নিয়ে ভারতের রোডম্যাপ, রাষ্ট্র সংঘে তুলে ধরলেন প্রতিনিধি ...

মঙ্গলবার থেকেই ব্রিটেনে শুরু হচ্ছে করোনা প্রতিষেধক প্রয়োগের কর্মসূচি। সেই তালিকার প্রথম দিকে স্থান পেয়েছে। ৮০ বছর ও তারও বেশি বয়স্ক মানুষরা। স্বাস্থ্য পরিষেবার সঙ্গে যুক্ত ফ্রন্টলাইন কর্মীরা। একটি সূত্র জানাচ্ছে প্রথম সপ্তাহের মধ্যে ৮ লক্ষ করোনা টিকা বিলি করার লক্ষ্যমাত্রা গ্রহণ করা হয়েছে। গণটিকাকরণ প্রক্রিয়া মহামারির হাত থেকে বাঁচার আশা দেখাচ্ছে বিশ্বকে। দেশের মানুষকে সাবধান করেছেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিশ জনসন। তিনি বলেছেন টিকাকরণ প্রক্রিয়া শুরু হচ্ছে। দেশের প্রতিটি মানুষকে করোনা টিকা দিতে আরও সময় লাগবে। আর সেই কারণে দেশের নাগরিকদের স্বচ্ছ দৃষ্টি থাকা প্রয়োজন। সংক্রমণ রুখতে শীতকালেও লকডাউন চলবে বলেও জানিয়েছেন তিনি। দেশের মানুষের কাছে করোনা সংক্রান্ত স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলারও আবেদন জানিয়েছেন তিনি।