একেই বোধ হয় বলে ভোট বড় বালাই। বিজেপির যে নজরে রয়েছে রয়েছে বাংলার ভোট সেটা আরও একবার প্রকাশ করেদিলেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমন। তবে তার জন্য সরাসরি কোনও কিছুই বলেননি তিনি। কিন্তু তাঁর গতিবিধি স্পষ্ট করল সেটাই। চওড়া লাল পাড় সাদা সাড়ি পরেই বাজেট পেশ করলেন নির্মলা সীতারমন। একই সঙ্গে তিনি প্রথমেই বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের কবিতার কিছু অংশ উদ্ধৃতি করেন। হাইওয়ের জন্য ২৫ হাজার কোটি টাকার প্রকল্পের কথাও ঘোষণা করেন তিনি। 

বিভিন্ন উৎসবে লাল পাড়া সাদা শাড়ি পরা বাংলার মহিলাদের রীতি। এদিন অনেকটা সেই রীতি যেনে মেনে চললেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমন। তিনি একটা চওড়া আর টকটকে লাল পাড়ের একটি সাদা শাড়ি পরেই সংসদে এসেছিলেন। বাজেট ভাষণের শুরুতেই রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের 'ভোরের পাখি' কবিতার ইংরাজি উদ্ধৃতি দেন। তিনি বলেন,'ফেথ ইজ দ্যা বার্ড জ্যাট ফিলস দ্যা লাইট অ্যান্ড সিঙ্গস হোয়েন ডন ইজ স্টিট ডার্ক'। আর এই উদ্ধৃতি দিয়ে তিনি বলেন, ইতিহাসে এক নতুন যুগের ভোর, প্রতিশ্রুতি আর আশার মাটিতে ভারতের নয়া উত্তরণের বিশ্বাস উজ্জ্বল। 

এদিন বাংলার জন্যই নির্মলার বাজেট ভাষণে বিশেষ বরাদ্দ ছিল।  ২০২২ সালের মার্চ মাস পর্যন্ত ৮৫০০ কিলোমিটার হাইওয়ে সহ হাইওয়ে পরিকাঠামোগত কাজের প্রস্তাব বাজেট প্রস্তাবে রেখেছেন তিনি। শুধুমাত্র বাংলার হাইওয়য়ে প্রকল্পের জন্যই বরাদ্দ করা হয়েছে ২৫ হাজার কোটি টাকা। তবে শুধু বাংলা নয়, ভোটমুখী রাজ্য অসম ও তামিলনাড়ুর জন্যও এজাতীয় প্রকল্পের প্রস্তাব করা হয়েছে। কিন্তু  এই বাজেটে কিছুটা হলেও গুরুত্ব পেয়েছে বাংলা। 

আরও শক্তিশালী দেশ হবে ভারত, সাধারণ বাজেটে প্রতিরক্ষা খাতে বরাদ্দ বাড়িয়ে ইঙ্গিত নির্মলার ...

সাধারণ বাজেটেও কৃষক দরদী ভাবমূর্তি তুলে ধরার চেষ্টা, কৃষি ঋণের লক্ষ্যমাত্রা বৃদ্ধির ঘোষণা অর্থমন্ত্র...

লোকসভা নির্বাচনেই এই রাজ্যে রীতিমত চমকপ্রদ ফল করেছিল বিজেপি। তারপর থেকেই নবান্ন দখলের জন্য রীতিমত তৎপরতা দেখা গেছে গেরুয়া শিবিরে। রাজ্য নেতৃত্বের পাশাপাশি দলের শীর্ষ নেতৃত্বের কাছেও যে ২০২১ সালের পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা নির্বাচন গুরুত্বপূর্ণ তার প্রকাশ্যেই জানিয়েছে অমিত শাহ, জপি নাড্ডার মত নেতৃত্ব। আর সেই কারণে দিল্লির নেতারা একাধিকবার বাংলা সফর করছেন। রাজ্যের রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের মনে এবার সেই তালিকায় নাম লেখালেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমন।