পত্রলেখা বসু চন্দ্র, বর্ধমান-করোনা আবহে চূড়ান্ত অমানবিকতার সাক্ষী থাকল পূর্ব বর্ধামানের কাটোয়া। বিশ্রামরত অবস্থায় থাকা এক ভ্য়ান চালককে পিটিয়ে খুনের অভিযোগ উঠল এক স্কুলশিক্ষকের বিরুদ্ধে। ওই ভ্য়ান চালককে লোহার রড দিয়ে বেধড়ক মারধর করা হয় বলে অভিযোগ। গুরুতর অবস্থায় ওই ভ্য়ান চালককে হাসপাতালে ভর্তি করলে চিকিৎসাধীন  অবস্থায় ওই ভ্য়ান চালকের মৃত্যু হয়।

আরও পড়ুন-বিহারে ৭১টি আসনে প্রথম দফার ভোট গ্রহণ, আট মন্ত্রীর ভাগ্য নির্ধারণ আজ

চাঞ্চল্যকর এই ঘটনাটি ঘটেছে পূর্ব বর্ধমানের কাটোয়ায়। মাধবীতলার বাসিন্দা পেশায় স্কুলশিক্ষক অমিত মল্লিক মেঘনাথ পণ্ডিত নামে ভ্য়ান চালককে পিটিয়ে খুন করে বলে অভিযোগ। জানাগেছে, অমিত মল্লিক বীরভূমের লাভপুর উচ্চবিদ্যালয়ের গণিতের শিক্ষক। তাঁর বাড়ির নীচের তলায় দোকান রয়েছে। দোকানের সামনেই বারান্দা। এদিন দুপুরে ওই বারান্দার সামনে ভ্যান থেকে নেমে বিশ্রাম নিচ্ছিলেন মেঘনাথ পণ্ডিত। স্কুল শিক্ষক অমিত মল্লিক তা দেখে মেঘনাথকে সেখান থেকে চলে যেতে বলেন। মেঘনাথ উঠতে দেরি করায় তাঁদের মধ্যে বচসা শুরু হয়। অভিযোগ, সেই সময় লোহার রড দিয়ে মেঘনাথকে মারতে থাকেন স্কুল শিক্ষক অমিত মল্লিক।

আরও পড়ুন-করোনা গুজবে বেঘোরে মৃত্যু বৃদ্ধের, সৎকারে এগিয়ে এল না কেউ, শেষকৃত্য সম্পন্ন করলেন মুসলিমরা

ঘটনার জেরে উত্তেজনা ছড়ায় এলাকায়। গুরুতর অবস্থায় ভ্য়ান চালক মেঘনাথ পণ্ডিতকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেই মহূর্তে প্রাথমিক চিকিৎসার পর তাঁকে ছেড়ে দেন চিকিৎসকরা। কিন্তু রবিবার রাতে ফের শারীরিক অবস্থার অবনতী হয়। কাটোয়া হাসপাতালে ভর্তি করা হলে সোমবার রাত দুটো নাগাদ মৃত্যু হয় মেঘনাথের। অভিযুক্ত স্কুল শিক্ষক অমিত মল্লিককে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করছে কাটোয়া থানার পুলিশ।