পত্রলেখা বসু চন্দ্র, বর্ধমান-একুশের বিধানসভা ভোট যতই এগিয়ে আসছে। উত্তোরতর বৃদ্ধি পাচ্ছে তৃণমূলের গোষ্ঠী কোন্দল। শাসকদলের দুই গোষ্ঠীর সংঘর্ষের জেরে এলাকায় বোমাবাজি করা হয় বলে অভিযোগ। পরিস্থিতি সামাল দিতে এলাকায় ধরপাকড় শুরু করেছে পুলিশ।

আরও পড়ুন-পুকুর থেকে পাথর মূর্তি উদ্ধার ঘিরে তুলকালাম কাণ্ড, মূর্তি পুজো ঘিরে কার্যত মেলার চেহারা তমলুকে

ঘটনাটি ঘটেছে পূর্ব বর্ধমানের গলসির সিংপুর গ্রামে। তৃণমূল নেতা হাসু মণ্ডল প্রাক্তন ব্লক সভাপতি ছিলেন। অন্যদিকে, তৃণমূল নেতা বকুল শেখ। যুব সভাপতি পার্থ মণ্ডলের অনুগামী। হাসু ও বকুলের মধ্যে বিবাদ দীর্ঘ দিনের। জানাগেছে, স্থানীয় একটি রাইস মিলের শ্রমিকদের বোনাস দেওয়া নিয়ে গন্ডগোলের সূত্রপাত।

আরও পড়ুন-পাওনা টাকা নিয়ে বচসার জের,ধারালো অস্ত্রের কোপে মৃত্যু হল এক ব্যক্তির

ভাসাপুল মোড়ের একটি রাইস মিলে সিংপুর গ্রামের বেশ কয়েকজন শ্রমিকের কাজ করেন। মিলের শ্রমিকদের বোনাস দেওয়ার বিষয়ে একটি সমস্যা ছিল। সেই বোনাস নিয়ে অশান্তি শুরু হয়। গ্রামের মধ্যে আচমকা বোমাবাজি শুরু হয়। নিজেদের ক্ষমতা জাহির করতে হাসু মণ্ডল ও বকুল শেখ পৃথক দুই গোষ্ঠীর লোকজন বোমাবাজি শুরু করে বলে অভিযোগ। গ্রামের মধ্যেই ফাটানো হয় আট থেকে দশটি বোমা। ঘটনাস্থলে পুলিশ পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। ঘটনার পর কয়েকজনকে আটক করেছে পুলিশ।