খোদ সাংসদেরই ভোটাধিকার নেই! অবশেষে সমস্যা মিটল। আসানসোলের ভোটার হলেন বিজেপি সাংসদ তথা কেন্দ্রীয় বাবুল সুপ্রিয় ও তাঁর স্ত্রী রচনা শর্মা। বুধবার জেলার সংশোধিত ভোটার তালিকা প্রকাশ করেছে নির্বাচন কমিশন। নয়া তালিকায় নাম রয়েছে সস্ত্রীক মন্ত্রীর। ফলে এবার আর ভোটের সময়ে এলাকায় থাকতে আর কোনও বাধা নেই সাংসদের। 

আরও পড়ুন: 'রোহিঙ্গা অনুপ্রবেশকারীদের ঘর হয়ে গেছে রাজ্য', জামিন পেয়েই গর্জে উঠলেন দিলীপ ঘোষ

গানের জগৎ থেকে চলে এসেছে রাজনীতিতে। ২০১৪ সালে বিজেপি টিকিটে আসানসোল থেকে প্রথম সাংসদ নির্বাচিত হন বাবুল সুপ্রিয়। ২০১৯-এও জিতেছেন তিনি। বছর ছয়েক আগে আসানসোলের মহিশীলা কলোনী বড়তলা এলাকায় ফ্ল্যাট কেনেন বাবুল। যখন শহরে আসেন, তখন সপরিবারে ওঠেন ওই ফ্ল্যাটে। তিনি না থাকলে, ওই ফ্ল্যাটের একটি অংশ সাংসদ ও বিজেপি কার্যালয় হিসেবে ব্যবহার করা হয়। কিন্তু এলাকার সাংসদ হলেও আসানসোলে ভোট দিতে পারতেন না বাবুল সুপ্রিয়। কারণ, তিনি ছিলেন কলকাতার ভোটার। শুধু তাই নয়, বিধানসভা ও পুরভোটের সময় ৪৮ ঘণ্টা আগেই শহর ছেড়ে চলে যেতে হত তাঁকে। এবার আর কোনও সমস্যা রইল না।

আরও পড়ুন: 'শুভেন্দু অধিকারী ছিলেন, আছেন, থাকবেন', এবার পোস্টার পড়ল উত্তরবঙ্গেও

জানা গিয়েছে, আসানসোল উত্তর বিধানসভা কেন্দ্রের ১৯ নম্বর ওয়ার্ডের বাসিন্দা বাবুল সুপ্রিয়। সংশোধিত ভোটার তালিকায় ওই ওয়ার্ডেরই ২৯১ নম্বর পার্টে ৬৩৩ নম্বরে নাম রয়েছে বাবুল সুপ্রিয় বড়ালের। তালিকায় নাম উঠেছে স্ত্রী রচনা শর্মা সুপ্রিয়েরও।  স্বাভাবিকভাবেই খুশি স্থানীয় বিজেপি নেতৃত্ব। তাঁদের বার্তা, আসানসোলকে বাবুল সুপ্রিয় নিজের শহর, নিজের ঘর বলেই মনে করেন। তাই কলকাতা থেকে নাম সরিয়ে আসানসোল নিয়ে এলেন তিনি।