সোশ্যাল মিডিয়ার যুগে মোবাইলে বন্দি শিশুর মন। শুধু তাই নয় অনেকেই টেলিভিশনের পর্দায় কার্টুনে মগ্ন। তার সঙ্গে পাল্লা দিয়ে চলছে পড়াশুনার কম্পিটিশন। ফলে হারিয়ে যাচ্ছে পুতুল খেলা, হারিয়ে যাচ্ছে পুতুল নাচ। শিশুরাও বঞ্চিত হচ্ছে পুতুল খেলার আনন্দ থেকে। 

পুতুল খেলার ঝোঁক কমে গেছে।  পুতুলের দিকে ঝোঁক বাড়াতে বর্ধমানের টাউনহল ঐ পুতুল নাটকের আয়োজন করেছে বর্ধমান দ্য পাপেটার্স নামক সংস্থা। সেখানে তিন দিন ধরে বিভিন্ন পুতুল নিয়ে নাটক উৎসব হল। শুধু তাই নয় তারা সারা বছরই নানা রকম প্রোগ্রাম করে পুতুল খেলার ওপর। শিল্পীর শিল্পভাবনার অপূর্ব নিদর্শন ফুটে ওঠে পুতুল নাটকের মাধ্যমে। বিভিন্ন পুতুল নিয়ে একটি সুন্দর গল্প উপস্থাপনা করা হয় মানুষের সামনে। তবে বিভিন্ন ধরনের পুতুল নাটকের এখন প্রচলন হয়েছে কাঠপুতুল ছায়া পুতুল রানী পুতুল ইত্যাদি।

শুধু পুতুল খেলা নয় ছোটদের নিয়ে একটি পুতুল নাটকের ও পুতুল তৈরির প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়। সেখানে পুতুল কিভাবে বানানো হয় তার শেখানো হয়। সংস্থার কর্মকর্তা পার্থ প্রতিম পাল জানিয়েছেন, বাচ্চাদেরকে আবার পুতুল খেলার দিকে ঝোঁক বাড়াতে তারা আন্দোলন তারা চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন এলাকার ছোট ছোট শিশুদের পুতুল তৈরি থেকে শুরু করে পুতুল নাটক উপস্থাপনা সবই তারা প্রশিক্ষণ দেন। 

প্রতিবছর বিভিন্ন ধরনের পুতুল নাটকের আয়োজন করেন তাতে শিশুরা আনন্দ পায় এবং এই পুতুল নাটকের মাধ্যমে তাদের বিভিন্ন বিষয়ে শিক্ষা হয়। পুতুল নাচ পুতুল তৈরি করা এবং পুতুলের উপর নাটক উপস্থাপনার করে খুশি খুঁদেরা। অন্যদিকে পুতুল নাটক দেখে খুশি বলে সকলে।