পত্রলেখা বসু চন্দ্র, বর্ধমান:  অনুশোচনা নাকি মানসিক অবসাদ? পুলিশ লকআপে গলায় দড়ি দিয়ে আত্মহত্যা করল আসামী। ধর্ষণের মামলায় অভিযুক্ত ছিল সে। ঘটনাটি ঘটেছে পূর্ব বর্ধমানের কেতুগ্রাম থানায়। 

আ্ররও পড়ুন: যাত্রী প্রতিক্ষালয়ে ধাক্কা গ্যাস সিলিন্ডার বোঝাই লরির, জাতীয় সড়কে বিধ্বংসী আগুন

জানা গিয়েছে, মৃতের নাম মিরাজুল শেখ। বাড়ি, বীরভূমের লাভপুরের কাজিপাড়ায়। এক বিবাহিত মহিলার সঙ্গে পরকীয়া সম্পর্কে জড়িয়ে পড়ে সে।  ওই মহিলার দাবি, বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে তাঁর সঙ্গে সহবাসও করেছে মিরাজুল। স্থানীয় কেতুগ্রাম থানায় অভিযোগও দায়ের করেন তিনি। বীরভূম লাগোয়া কেতুগ্রামের কুর্মডাঙা এলাকা থেকে বুধবার সন্ধ্যায় গ্রেফতার করা হয় অভিযুক্তকে।

আরও পড়ুন: করোনার কোপে উৎসবে ভাটার টান, পুরুলিয়ায় ভাদু পুজো এবার জৌলুসহীন

আরও পড়ুন: তৃণমূলের গোষ্ঠী কোন্দলের জের, দলীয় কর্মীদের বিক্ষোভের মুখে টিম পিকে

পুলিশ সূত্রে খবর, গ্রেফতারির পর মিরাজুল কেতুগ্রাম থানায় এনে লকআপে রাখা হয়। লকআপ থাকার সময়ে পরনের প্যান্টে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করে ওই যুবক। গুরুতর জখম অবস্থায় তাকে নিয়ে যাওয়া হয় কাটোয়া মহকুমা হাসপাতাসে। কিন্তু শেষরক্ষা হয়নি। হাসপাতালের মিরাজুল শেখকে মৃত বলে ঘোষণা করেন চিকিৎসকরা। কীভাবে এমন ঘটনা ঘটল? নিয়মমাফিক মৃতদেহটি ময়নাতদন্তে পাঠিয়েছে পুলিশ। ঘটনার ম্যাজিস্ট্রেট পর্যায়ের তদন্ত হবে বলে জানা গিয়েছে।