বিধানসভা ভোটের মুখে ফের প্রকাশ্যে তৃণমূলের গোষ্ঠীকোন্দল। দুই পক্ষের সংঘর্ষে আহত হলেন বেশ কয়েকজন। তাঁদের হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পথে ভাঙচুর চলল অ্যাম্বুল্যান্সেও! রণক্ষেত্রের চেহারা নিল কোচবিহারের তুফানগঞ্জ।

আরও পড়ুন: পাহাড় থেকে জাতীয় সড়কে পড়ল পাথর, সেবক সহ সিকিমের সঙ্গে যোগাযোগ বন্ধ

ঘটনার সূত্রপাত মঙ্গলবার সন্ধ্যায়। দলের তুফানগঞ্জের অঞ্চল সভাপতি ফারুক মণ্ডলের বাড়িতে জড়ো হয়েছিলেন স্থানীয় তৃণমূল কর্মীদের একাংশ। ফেরার পথে স্থানীয় চুলকানি বাজার এলাকায় তাঁদের উপর বিরোধী গোষ্ঠীর লোকেরা হামলা চালায় বলে অভিযোগ।  খবর ছড়িয়ে পড়তেই কার্যত রণক্ষেত্রের চেহারা নেয় এলাকা। সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েন তৃণমূলের কোচবিহারের জেলা সভাপতি ও উত্তরবঙ্গ উন্নয়নমন্ত্রী অনুগামীরা। জখম হন দু'পক্ষের বেশ কয়েকজন। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছয় বিশাল পুলিশবাহিনী। তবে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে দীর্ঘক্ষণ সময় লাগে।

আরও পড়ুন: পুজোর মুখেও বন্ধ হাওড়া মঙ্গলাহাট, ছোট-বড় লক্ষাধিক ব্যবসায়ীর ভবিষ্যৎ অনিশ্চিত

আরও পড়ুন: রাবার কারখানায় বিধ্বংসী আগুন, লিলুয়ায় আতঙ্ক

এদিকে আহতদের উদ্ধার করে যখন হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া যাচ্ছিল, তখন শাসকদলের একটি গোষ্ঠী অ্যাম্বুল্যান্সও হামলা চালায় বলে জানা গিয়েছে। বস্তুত, কোচবিহারে তৃণমূলের গোষ্ঠী সংঘর্ষের ঘটনা যে এই প্রথম ঘটল, তা কিন্তু নয়। এর আগেও বহুবার রাজনৈতিক বিবাদে রক্তারক্তি কাণ্ড ঘটেছে তুফানগঞ্জেও।