ভেঙে গেল আগের সব রেকর্ড। গত ২৪ ঘন্টায় রেকর্জ পরিমাণে বাড়ল ভারতে কোভিড-১৯ আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রকের দেওয়া হিসাব অনুযায়ী বৃহস্পতিবার থেকে শুক্রবারের মধ্যে ২৪ ঘন্টায় দেশে মোট ৮৯৬ জন নতুন কোভিড-১৯ রোগীর সন্ধান পাওয়া গিয়েছে। এর আগে ভারতে ২৪ ঘন্টায় এতজন রোগী বাড়েনি। আর গত ২৪ ঘন্টায় করোনাভাইরাস সম্পর্কিত কারণে মৃত্যু হয়েছে ৩৭ জনের।

সবমিলিয়ে দেশে এই মুহূর্তে স্বাস্থ্যমন্ত্রকের হিসাব অনুযায়ী মোট আক্রান্তের সংখ্য়া বেড়ে হল ৬,৭৬১। এরমধ্যে অবশ্য ৫১৬ জন সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে গিয়েছেন। আর শুক্রবার ভারতে কোভিড-১৯ রোগে মৃতের সংখ্যা ২০০ ছাড়িয়ে পৌঁছেছে ২০৬-এ। মন্ত্রকের যুগ্ম সচিব লব আগরওয়াল জানিয়েছেন, শুধু গত ২৪ ঘন্টাই নয়, গত ৪৮ ঘন্টা ধরেই ভারতে একেবারে খাড়াভাবে কোভিড-১৯ আক্রান্তের সংখ্যাটা বেড়ে চলেছে। এই সময়কালে ভারতে প্রায় ১,৮৭৭টি নতুন কোভিড-১৯'এর মামলা পাওয়া গিয়েছে।

করোনা কাড়ল আরও এক ডাক্তারবাবুর প্রাণ, মধ্যপ্রদেশের ইন্দোরে হচ্ছে টা কী

রবিবাসরীয় সন্ধ্যায় আবার টিভিতে প্রধানমন্ত্রী মোদী, আসতে চলেছে বড় ঘোষণা

আইসিইউ-তে শাহজাদা, কোভিড-১৯-এ আক্রান্ত সৌদি রাজ পরিবার

এই প্রেক্ষিতে ভারতে লকডাউনের সীমা আরও বাড়বে বলে আশা করা হচ্ছে। অবশ্য কেন্দ্রীয় সরকার এই বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগেই বৃহস্পতিবার ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত লকডাউনের সীমা বাড়িয়েছিল ওড়িশা। এদিন দ্বিতীয় রাজ্য হিসাবে পঞ্জাব-ও একই পথে হাঁটল। এদিন মন্ত্রিসভার বৈঠকে পঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী অমরিন্দর সিং জানান, রাজ্যে এই মহামারী 'ভয়াবহ এবং ভীতিজনক' াকার নিতে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা। ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে সংবাদ সম্মেলন করে অমরিন্দর সিং জানান, পঞ্জাব সরকার এই লকডাউনের মধ্যে শুধুমাত্র কৃষকদের রবি শস্য তোলার জন্য জেলাভিত্তিক ছাড় দেবে।