প্রতিদিনই এদেশে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে। বিশ্বে যেখানে মোট আক্রান্তের সংখ্যা এখন ১৫ লক্ষের দিকে এগোচ্ছে তেমনি ভারতের করোনাভাইরাসের গ্রাফেও উর্দ্ধমুখী। বুধবার সকালেই দেশে আক্রান্তের সংখ্যা ৫ হাজার ছাড়িয়ে গেল।  সর্বশেষ পাওয়া খবর অনুযায়ী এখনও পর্যন্ত ভারতে করোনা সংক্রমণের মোট কেস ৫,১৯৪। এর মধ্যেই রেকর্ড গড়েছে গত ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত হয়েছেন ৭৭৩ জন। এটাই এখনও পর্যন্ত একদিনে সবচেয়ে বেশি আক্রান্তের সংখ্যা।

 

 

স্বাস্থ্যমন্ত্রকের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী এখনও পর্যন্ত ভারতে করোনা সংক্রমণে মৃত্যু হয়েছে ১৪৯ জনের। সুস্থ হয়ে হাসপাতাল থেকে ছাড়া পয়েছেন ৪০১ জন। এরমধ্যেই আশঙ্কা বাড়িয়ে মহারাষ্ট্রে আক্রান্তের সংখ্যা ছাড়িয়ে গেল হাজারের গণ্ডি। বুধবার নতুন করে রাজ্যটিতে ৬০ জনের আক্রান্ত হওয়ার খবর পাওয়া গিয়েছে। যার মধ্যে ৪৪ জনই বৃহন্মুম্বই মিউনিসিপল কর্পোরেশন এলাকার বাসিন্দা। 

 

 

এদিকে করোনা সংক্রমণে এখনও পর্যন্ত দেশের মধ্যে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে তামিলনাড়ু। রাজ্যটিতে আক্রান্তের সংখ্যা ৬৯০। রাজধানী দিল্লি রয়েছে তৃতীয় স্থানে। বুধবার সকালে নতুন করে দিল্লিতে ৫১ জনের শরীরে মারণ ভাইরাসের সংক্রমণ পাওয়া গিয়েছে। ফলে রাজধানীতে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৫৭৬। 

 

 

এদিকে এদেশে করোনা আক্রান্তদের মোট ১,৫০০ জন দিল্লির নিজামুদ্দিনে তবলিগ জামাতের ধর্মীয় অনুষ্ঠানে যোগ দিয়েছিলেন বলে আগেই জানিয়েছে স্বাস্থ্যমন্ত্রক। বর্তমানে করোনা সংক্রমণের মোকাবিলা করতে গোটা দেশে ২১ দিনের লকডাউন চলছে। এই লকডাউন চলবে ১৪ এপ্রিল। তবে করোনা পরিস্থিতি সামলাতে একাধিক রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী লকডাউনের সময়সীমা বাড়ানোর জন্য কেন্দ্রের কাছে আবেদন করেছে। এই অবস্থায় আগামী শনিবার ফের ভিডিও কনফারেন্সে মুখ্যমন্ত্রীদের সেঙ্গে বৈঠকে বসতে চলেছেন প্রধানমন্ত্রী।

করোনা আক্রান্ত বিশ্বকে পথ দেখাল উহান, লকডাউনের ৭৬ দিন পর একেবারে স্বাভাবিক জীবনে শহরবাসী

এবার একেবারে আর্থিক সাহায্য বন্ধের হুঁশিয়ারি, চিন নিয়ে ফের 'হু'-কে ধমকালেন ট্রাম্প

লকডাউনে বাড়িতে বসেই বাড়িয়ে ফেলুন প্রতিরোধ ক্ষমতা, করোনা যুদ্ধে নামার টিপস দিল খোদ সরকার