করোনাভাইরাস সংক্রমণে কিছুটা হলেও লাগাম পরানো গেছে বলেই শুক্রবার দাবি করলেন স্বাস্থ্য মন্ত্রকের যুগ্ম সচিব লব আগরওয়াল। একই তথ্য দিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকারও। কেন্দ্রীয় সরকারের দাবি লকডাউনের পরই কমেছে আক্রান্তের হার। সরকারের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, লকডাউনের আগে দেশে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা তিন দিন অন্তর দ্বিগুণ হারে বাড়ছিল। কিন্তু গত ৭ দিনের পরিসংখ্যণে দেখা গেছে আক্রান্তের সংখ্যা ৬ দিন অন্তর দ্বিগুণ হচ্ছে। ১৯ টি রাজ্যে দ্বিগুণ হারে বৃদ্ধি নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা করা হচ্ছে। একই সঙ্গে নজর রাখা হচ্ছে কেন্দ্র শাসিত অঞ্চল গুলিতে। 

 

স্বাস্থ্য মন্ত্রকের দেওয়া তথ্যে শুক্রবার বিকেল পর্যন্ত নতুন করে আরও ১০০৭ জন আক্রান্ত হয়েছেন। মৃত্যু হয়েছে ২৩ জনের। দেশে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ১৩,৮৩৫। মৃত্যু হয়েছে ৪৫২। এখনও পর্যন্ত সুস্থ হয়ে উঠেছে ১হাজার ৭৬৭ জন। এখনও আক্রান্তের সংখ্যার শীর্ষে রয়েছে মহারাষ্ট্র। আক্রান্তর সংখ্যা ৩ হাজার ছাড়িয়েছে। মৃতের সংখ্যা ৩০০র বেশি।   

স্বাস্থ্য মন্ত্রক আরও একটি তথ্য এদিন তুলে ধরেছে। যেখানে দেখা হয়েছে, করোনাভাইরাসের সংক্রমণে যেকজন আক্রান্ত হয়েছেন আর সুস্থ হয়ে উঠেছেন, তার অনুপাত হল, ১০০ জনের মধ্যে ৮০ জনই সুস্থ হয়ে উঠেছেন। আর মৃত্যু হয়েছএ ২০ জনের।