দেশে আক্রান্তের সংখ্যা প্রতিদিনিই লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে। গত ২৪ ঘণ্টায় ভারতে আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ২০০ বেশি। যা এখনও পর্যন্ত একদিনের  নিরিখে সর্বোচ্চ। এরমধ্যেই আলাদা করে চিন্তা বাড়াচ্ছে মহারাষ্ট্র। এখনও পর্যন্ত এদেশে করোনা সংক্রমণের ঘটনায় সবচেয়ে এগিয়ে রয়েছে এই রাজ্য। আক্রান্তের সংখ্যা ২০০ ছাড়িয়ে পৌঁছে গেছে ২৩০ তে। আর এর মধ্যে সবচেয়ে বাজে অবস্থা বাণিজ্য নগরী মুম্বইয়ের। আক্রান্তের সংখ্যা এই শহরে একশো ছুঁতে চলল।

নিজামুদ্দিনে ২৪ জনের শরীরে মিলল মারণ ভাইরাস, ব্যর্থতার তিরে বিদ্ধ কেজরি

গোষ্ঠী সংক্রমণ থেকে আর রক্ষে পেল না দিল্লি, হাসপাতালে ভর্তি তাবলিগ জামাতে অংশ নেওয়া ৩০০ জন

করোনার ভয়ে বাড়িতে থাকলে খোয়াতে হবে চাকরি, নিদান দিলেন ব্রাজিলের বিতর্কিত প্রেসিডেন্ট

মঙ্গলবার সকালে মহারাষ্ট্রে নতুন করে ১০ জনের শরীরে সংক্রমণের খবর পাওয়া গিয়েছে। এদের মধ্যে ৫ জন মুম্বইয়ের বাসিন্দা। বাকি ৩ জন পুনের এবং ২ জন বুলধানার। সোমবার রাজ্যটিতে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছিল ১১। 

মহারাষ্ট্রের পরিস্থিতি মোকাবিলায় এবার রাজ্য সরকারি কর্মীদের বেতন কাটার সিদ্ধান্ত নিল রাজ্য সরকরা। স্থির হয়েছে মার্চ মাসের বেতনের ক্ষেত্রে এ এবং বি গ্রেডের সরকারি কর্মীদের বেতনের ৫০ শতাংশ কেটে নেওয়া হবে। গ্রেড সি কর্মীদের বেতন কাটা হবে ২৫ শতাংশ। তবে গ্রুড ডি কে বেতনের কাটছাট থেকে রেহাই দেওয়া হয়েছে।

 

 

শুধু সরকারি কর্মী নয়, মহারাষ্ট্র সরকার মার্চ মাসে জনপ্রতিনিধিদের বেতনের ৬০ শতাংশ কাটার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরে ও অর্থমন্ত্রী অজিত পাওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন য, মুখ্যমন্ত্রী, বিধায়ক, বিধান পরিষদ সদস্য সহ সমস্ত নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিদের মার্চ মাসের বেতনের ৬০ শতাংশ কেটে নেওয়া হবে।

 

 

এদিকে করোনা সংক্রমণ আটকাতে গত ৩ সপ্তাহ ধরে লকডাউন চলছে মহারাষ্ট্রে। ভেঙে পড়েছএ রাজ্যের আর্থিক অবস্থা। পরিস্থিতি মোকাবিলায় কেন্দ্রের কাজ্যে ২৫ হাজার কোটি টাকার বিশেষ প্যাকেজ চাইল মহারাষ্ট্র সরকার। এনিয়ে প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি দিলেন রাজ্যের উপমুখ্যমন্ত্রী অজিত পাওয়ার। 

তবে শুধু মহারাষ্ট্র নয়, বেতন কাটছাঁটের পথে এগিয়েছে তেলেঙ্গানাও। রাজ্য সরকারি কর্মীদের বেতনে ৬০ শতাংশ পর্যন্ত কাটছাঁট করা হবে বলে জানিয়েছে দিয়েছে সেরাজ্যের সরকারও।