করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে সংক্রমণের বিরুদ্ধে লড়াইতে প্রথম থেকেই সামনের সারিতে দাঁড়িয়ে দেশকে নেতৃত্ব দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।  এই বিশেষ পরিস্থিতিতে তাঁর নেতৃত্ব ছিল যথাযত। সোশ্যাল মিডিয়ায় তেমনই দাবি কেন্দ্রীয় অর্থ মন্ত্রী নির্মলা সীতারমনের। আমেরিকার একটি সংস্থা বিশ্বের সেরা দশ নেতা বাছাই করে একটি সার্ভে চালিয়ে ছিল। আর সেখানেই সব থেকে বেশি নম্বর পেয়ে প্রথম স্থান দখল করেনে দেশের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। দাবি করেছেন নির্মালা সীতারমন। পাশাপাশি সেই সংস্থার প্রকাশ করা একটি গ্রাফও তুলে ধরেছেন তিনি। 


সংস্থার প্রকাশিত গ্রাফে দেখা যাচ্ছে ৬৮ পয়েন্ট পেয়ে তালিকার শীর্ষ রয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। তাঁর ধারে কাছে কেউ নেই। ৩৯ পয়েন্ট পেয়ে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছেন মেক্সিকোর আন্দ্রেস ম্যানুয়েল লোপেজ ওব্রাডোর ও তৃতীয় স্থানে রয়েছেন ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। জনপ্রিয়তার গ্রাফ যথেষ্টই নিম্নগামী মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের ক্ষেত্রে। গত পয়লা জানুয়ারি থেকে ১৪ই এপ্রিলের মধ্যেই এই সার্ভে করা হয়েছিল বলেই  জানিয়েছেন সীতারমন। 

আরও পড়ুনঃ আজ রাতে কি হাসপাতালে মোমবাতি জ্বলবে, সকালেই চিকিৎসকদের সঙ্গে কথা অমিত শাহর ...

আরও পড়ুনঃ যোগীর রাজ্যে আরতির থালা আর কলা হাতে পুলিশ ঘুরছে রাস্তায়, দেখুন সেই ভিডিও ...

আরও পড়ুনঃ চিকিৎসকদের হুমকির পরেই কড়া পদক্ষেপ সরকারের, হামলা রুখতে অমিত শাহর পর আসরে জাভড়েকর ...

করোনাভাইরাস মোকাবিলায় ভারতে আক্রান্তের সংখ্যা ২০ হাজার ছাড়িয়েছে। এখনও পর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে ৬৪০ জনের। এই অবস্থায় দাঁড়িয়ে দেশের বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলি রীতিমত প্রধানমন্ত্রীর বিরোধিতায় সরব হয়েছে। লকডাউন নিয়েও রীতিমত সমালোচনা শুরু করে দিয়েছে বিরোধী রাজনৈতিক দলের নেতারা। ধান থেকে স্যানিটাইজার তৈরি থেকে শুরু করে লকডাউনে অভিবাসী শ্রমিকসহ একাধিক ইস্যুতে সুর চড়িয়েছেন কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধি। পাশাপাশি দেশের  অর্থনৈতিক পরিস্থিতি নিয়েও সমালোচকদের মুখে পড়তে হয়েছে মোদী সরকারকে। এই অবস্থায় দাঁড়িয়ে আমেরিকার একটি সংস্থার সার্ভে কিছুটা হলেও স্বস্তির বার্তা নিয়ে এসেছে  কেন্দ্রের বিজেপি সরকার ও প্রধানমন্ত্রীর জন্য।