প্রথমবার মুখ্যমন্ত্রী কুর্সিতে বসার পরই রাজ্যবাসীর পাশে দাঁড়ানোর বার্তা তামিলনাড়ুর মুখ্যমন্ত্রী এমকে স্ট্যালিনের। করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে ক্ষতিগ্রস্থ তামিলনাডুবাসীর জন্য করলেন বড় ঘোষণা। করোনা ত্রানে প্রতিটি পরিবারকে মাসিক ৪ হাজার টাকা করে দেওয়ার সিদ্ধান্তের কথা জানালেন তামিলনাডুর নব নির্বাচিত মুখ্যমন্ত্রী। পাশাপাশি ঘোষণা করলে রাজ্যের প্রাইভেটে হাসপাতালে যারা করোনার চিকিৎসা করছেন তাদের খরচও রাজ্য সরকার দেবে। রাজ্যে দুধের দাম কমিয়ে দিলেন। রাজ্যের মহিলাদের জন্য গণপরিবহণ একেবারে বিনামূল্য করে দিলেন। সব মিলিয়ে প্রথমবার মুখ্যমন্ত্রী হওয়ার প্রথম দিনটা একেবারে যেন কল্পতরুর ভূমিকায় স্ট্যালিন।

আরও পড়ুন: দিল্লিকে রোজ ৭০০ মেট্রিক টন অক্সিজেন দিতেই হবে, কেন্দ্রকে সুপ্রিম নির্দেশ

আজ রাজভবনে শপথ সেরে উঠে স্ট্যালিন জানালেন, রাজ্যের পরিবার পিছু চার হাজার টাকা করোনা ত্রাণ হিসেবে দেওয়া হবে। পাশাপাশি মে মাসেই দেওয়া হবে প্রথম কিস্তির ২ হাজার টাকা। রাজ্যের রেশনকার্ডধারী ২.০৭ কোটি মানুষ পাবেন এই সুবিধা। 

আরও পড়ুন: প্যারোলে মুক্ত খুনের আসামী ব্যস্ত করোনায় পরিত্যক্ত মৃতদেহের শেষকৃত্যের কাজে

আজ সকালে, স্ট্য়ালিনকে মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে শপথবাক্য পাঠ করান তামিলনাড়ুর রাজ্যপাল বানওয়ারিলাল পুরোহিত। তামিল রাজনীতির পুরোধা এম করুনানিধির ছোট ছেলে স্ট্যালিন হলেন রাজ্যের ১৪তম মুখ্যমন্ত্রী। এআইএডিএমকে-র এদাপ্পাদি কে পালানিস্বামি-র স্থলাভিষিক্ত হলেন তিনি।

২৩৪ আসনের তামিলনাডু় বিধানসভায় স্ট্যালিনের নেতৃত্বে ডিএমকে জেতে ১৩৩ আসনে। ডিএমকে-র শরিক দল কংগ্রেস জেতে ১৮টি আসনে। বিরোধী এআইএডিএমকে সেখানে জেতে ৬৬টি ও বিজেপি ৪টি আসনে। এআইএডিএমকে-র জমানার অবসান ঘটিয়ে দশ বছর পর ক্ষমতায় ফিরল ডিএমকে। ১০ বছর আগে ডিএমকে-র মুখ্যমন্ত্রী হয়েছিলেন করুণানিধি। আর এবার সেই সিংহাসনে তাঁর ছেলে।