এ রাজ্যেও এবার লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। রবিবার চিকিৎসক-সহ তিনজনের শরীরে সংক্রমণ ধরা পড়েছে। পরিস্থিতি মোকাবিলায় সরকারি তহবিল যে যথেষ্ট নয়, তা স্বীকার করে নিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সাধারণ মানুষের কাছে সাহায্য় চেয়ে আবেদন জানিয়েছেন তিনি। ত্রাণ সামগ্রীই শুধু নয়, এর্মাজেন্সি ফান্ডের জন্য আর্থিক সাহায্যও চেয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। 

আরও পড়ুন: একই দিনে রাজ্য়ে আক্রান্ত তিন, করোনা সংক্রমণের সংখ্যা বেড়ে ২১

সপ্তাহ খানেক আগেই করোনা  মোকাবিলায় ২০০ কোটি টাকা তহবিল তৈরির কথা ঘোষণা করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। নবান্নে সাংবাদিক সম্মেলনে তিনি জানিয়েছেন, তহবিল গঠন করা ছাড়াও ৪ লক্ষ বিশেষ পোশাক, ২ লক্ষ সার্জিক্যাল মাস্ক, ২০ হাজার আইআর থার্মোমিটার, ৩০০ ভেন্টিলেটর এবং ৩টি ইসিএও মেশিন কেনার বরাত দিয়েছে রাজ্য সরকার। কিন্তু এতকিছুর জন্য টাকা আসবে কোথা থাকে? জনসাধারণের আর্থিক সাহায্যের জন্য একটি ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট নম্বর ঘোষণা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী। সেই অ্যাকাউন্ট নম্বরটি হল ৬২৮০০৫৫০১৩৩৯। আইএফএসসি কোড-আইসিআইসি০০০৬২৮০। এমআইসিআর কোড-৭০০২২৯০১০।  আর যাঁরা ত্রাণসামগ্রী দিয়ে সাহায্য করতে চান, তাঁদের স্বাস্থ্য দপ্তরের সচিব সঞ্জয় বনশালের সঙ্গে যোগাযোগ করতে হবে। যোগাযোগ করা যাবে মোবাইল নম্বরে  (৯০৫১০২২০০০) ও ইমেলেও (wbsacs@gmail.com)।

আরও পড়ুন: সীমানা সিল করুন এক্ষুনি, নবান্নে চিঠি পাঠাল মোদী সরকার

উল্লেখ্য, করোনা সংক্রমণ ঠেকাতে ১৫ এপ্রিল পর্যন্ত রাজ্যের সমস্ত সরকারি ও বেসরকারি স্কুল-কলেজে আগেই ছুটি ঘোষণা করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। সোমবার বিকেল থেকে চলছে লকডাউন। ফলে এখন গৃহবন্দি বেশিরভাগ মানুষই। ইতিউতি যাঁরা রাস্তায় বেরোচ্ছেন, তাঁদের বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপ করছে পুলিশ।