উত্তম দত্ত: করোনা সচেতনতায় 'মিউজিক থেরাপি' এখন নয়া ট্রেড। বছরভর যাঁরা লাঠি-বন্দুক হাতে  অপরাধীদের পিছনে ছুটে বেড়ান, লকডাউনের সময় তাঁরাই রাস্তায় দাঁড়িয়ে গান গাইছেন! উদ্দেশ্য, মানুষ যাতে বাড়ির বাইরে না বেরোন। পুলিশকর্মীদের গলায় শোনা যাচ্ছে জনপ্রিয় হিন্দি কিংবা বাংলার গানের প্যারোডি। ভিডিও ঘুরছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। আর এবার করোনা নিয়ে  স্বরচিত গান গেয়ে 'ভাইরাল হলেন' বাঁকুড়ার এক পুলিশ আধিকারিক।

আরও পড়ুন: করোনার বিরুদ্ধে লড়াই, বীরভূমে গান গেয়ে সচেতনতার পাঠ এসপিডিও-র

করোনা আতঙ্ক গ্রাস করেছে সকলকেই। কিন্তু লকডাউনের জেরে বন্দিদশায় হতাশাও কি বাড়ছে আমজনতার? একঘেয়েমি কাটাতে অনেকেই রাস্তায় বেরিয়ে পড়েছেন। সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়বে না তো? আশঙ্কা আরও বাড়ছে। মানুষকে সচেতন করতে গান লিখলেন বাঁকুড়ার কোতুলপুরের সার্কেল ইন্সপেক্টর অজয় সিংহ। নিজেই গানে সুরে দিয়েছেন এবং গেয়েছেন। পুলিশের উর্দি গায়ে তাঁর গানের ভিডিও ভাইরাল হয়ে গিয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। গানের কথা ও সুরের প্রশংসা করেছেন অনেকেই। বস্তুত, এর আগেও ওই পুলিশ আধিকারিক একাধিক গান লিখেছিলেন বলে জানা গিয়েছে। শুধু তাই নয়, তাঁর সুরে ও কথায় গান গেয়েছেন কুমার শানু, সাধনা সরগমের মতো স্বনামধন্য শিল্পীরাও।

 

আরও পড়ুন:: লকডাউনের বাজারে ওষুধের আকাল, বিপাকে ক্যানসার আক্রান্ত মহিলা

আরও পড়ুন: দিদির কথায় দান, রাজ্য়ের ত্রাণ তহবিলে ৫০০টাকা স্কুলছাত্রীর

উল্লেখ্য, দিন কয়েক আগে করোনা নিয়ে মানুষকে সচেতন করতে বীরভূমে পথে নেমেছিলেন খোদ রামপুরহাটের এসডিপিও সৌম্যজিৎ বড়ুয়া। রেশন দোকানের সামনে রাস্তায় দাঁড়িয়ে গানও গেয়েছিলেন তিনি। তবে স্বরচিত নয়, জেলার পদস্থ ওই পুলিশ আধিকারিকের গলায় শোনা গিয়েছিল জনপ্রিয় একটি বাংলা গানের প্য়ারোডি।