করোনা সন্দেহে আইসোলেশন ওয়ার্ডে ভর্তি ছিলেন তিনি। কার্নিশ বেয়ে সরকারি হাসপাতাল থেকে পালানোর চেষ্টা করলেন রোগী! ঘটনাটি জানাজানি হতেই আতঙ্ক ছড়াল রায়গঞ্জে। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের সাফাই, ওই ব্যক্তি সম্ভবত মানসিকভাবে সুস্থ নন। সেকারণেই পালানোর চেষ্টা করেছিলেন।

আরও পড়ুন: লকডাউনে গিজ গিজ করছে মানুষ, হাওড়া ফুল মার্কেটে ভয়াবহ দৃশ্য়

ঘটনার সূত্রপাত সপ্তাহ খানেক আগে। জ্বর ও মুখ দিয়ে রক্ত পড়ার উপসর্গ নিয়ে রায়গঞ্জ গর্ভমেন্ট মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে ভর্তি হন ওমপ্রকাশ পাণ্ডে নামে এক ব্যক্তি। তিনি আবার উত্তরপ্রদেশের বাসিন্দা। করোনা নয় তো? রোগীকে পত্রপাঠ আইসোলেশনে ওয়ার্ডে পাঠিয়ে দেন চিকিৎসকরা। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের দাবি, ওমপ্রকাশের লালারস বা সোয়াব পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছে। কিন্তু এখনও রিপোর্ট আসেনি। 

আরও পড়ুন: নিজামুদ্দিন থেকে ফিরে মসজিদে 'আত্মগোপন', পুলিশি অভিযানে খোঁজ মিলল ১২ জনের

আরও পড়ুন: পুরুলিয়ায় পীত-বমি করতে করতে বালকের মৃত্যু, পরিবারের অভিযোগ অনাহার

জানা গিয়েছে, শুক্রবার গভীর রাতে তিনতলার আইসোলেশন ওয়ার্ডের জানলা দিয়ে কার্নিশে নেমে পালানোর চেষ্টা করেন ওমপ্রকাশ। ঘটনাটি নজরে পড়ে যায় হাসপাতালে নিরাপত্তারক্ষী ও কর্তব্যরত পুলিশকর্মীদের। তড়িঘড়ি হাসপাতালের ভবনটি ঘিরে ফেলা হয়। খবর দেওয়া হয় রায়গঞ্জ থানা ও দমকলকে। ভিন রাজ্যের ওই রোগীকে উদ্ধার করতে সময় লেগে যায় প্রায় আড়াই ঘণ্টা। রাতে তাঁকে ফের আইসোলেশন ওয়ার্ডে পাঠিয়ে দেওয়া হয়।  আইসোলেশেন ওয়ার্ড থেকে রোগী কেন পালানোর চেষ্টা করলেন? রায়গঞ্জ গর্ভনমেন্ট মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালের সহকারি সুপার অভীক মাইতি বলেন, 'ওমপ্রকাশ সম্ভবত মানসিকভাবে সুস্থ নয়। আমার ওঁর কাউন্সেলিং করাব।'