দেশের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে রাজ্যেও করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে। পশ্চিমবঙ্গে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন সাড়ে চার হাজারের বেশি মানুষ। গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু হয়েছে ১৪ জনের। স্বাস্থ্য দফতরের প্রকাশিত করোনাভাইরাস সংক্রান্ত বুলেটিনে বর্তমানে রাজ্যে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৬ লক্ষেরও বেশি। এপর্যন্ত রাজ্যে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর সংখ্যা ১০ হাজারে গন্ডিও পার করে গেছে।  

Election Live Update- নিষেধাজ্ঞা ওঠার পরই নির্বাচনী প্রচার, তার আগেই ধর্নায় বসছেন তৃণমূল সুপ্রিমো মম...
এক নজরে রাজ্যের করোনা চিত্রঃ 

২৪ ঘণ্টায়  আক্রান্ত  ৪৫১১
২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু             ১৪

মোট আক্রান্ত ৬, ১৪, ৮৯৬
মোট মৃত্যু ১০,৪১৪

মোট অ্যাক্টিভ কেস   ২৬,৫৩১

রাজ্য স্বাস্থ্য দফতরের তথ্য অনুযায়ী দৈনিক সংক্রমণের হার বাড়লেও টিকাকরণের সংখ্যা অনেকটাই কমে দাঁড়িয়েছে। ১২ এপ্রিল রাজ্যে  মাত্র ৯০ হাজার ৯৯০ জনকে টিকা দেওয়া হয়েছে। ভোটের মরশুমকেই ভিড় বাড়ছে পাল্লা দিয়ে কমছে সচেতনতা। তাতেই করোনাভাইরাসের সংখ্যা রাজ্যে বৃদ্ধি পাচ্ছে বলেও মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। অন্যদিকে বেশ গত কয়েক মাসের তুলনায় গত কাল করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর সংখ্যাও অনেকটা বেড়ে গেছে বলে জানিয়েছে স্বাস্থ্য দফতর। রাজ্যের করোনা আক্রান্ত জেলা গুলির ক্রম তালিকায় শীর্ষ রয়েছে রাজধানী কলকাতা। আক্রান্তের সংখ্যা ১লক্ষ ৪২ হাজার ৪৭১। গত ২৪ ঘণ্টায় কলকাতায় আক্রান্তের সংখ্যা ৫৯০। দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে উত্তর ২৪ পরগনা। ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্তের সংখ্যা ৬১৯, মোট আক্রান্ত ১,৩৩,৫৭৬। ৩৯ হাজার আক্রান্তের সংখ্যা নিয়ে তৃতীয় স্থানে রয়েছে দক্ষিণ ২৪ পরগনা। হাওড়া হুগলি ও পশ্চিম বর্ধমান জেলালেও আক্রান্তের সংখ্যা উদ্বেগজনকভাবে বেড়ে চলেছে। 

১ দিনেই ২৭ লক্ষের মাইল ফলক পার, কোভিড টিকা উৎসবের প্রথম দিনেই জানাল স্বাস্থ্য মন্ত্রক ...
১২ এপ্রিল করোনাভাইরাসের দৈনিক সংক্রমণ অক্টোবরের দৈনিক সংক্রমণকেও ছাপিয়ে যাচ্ছে। যা নিয়ে উদ্বেগ বাড়ছে বিশেষজ্ঞদের। সংক্রমণ রুখতে গোটা দেশ জুড়েই শুরু হয়েছে চার দিনের টিকা উৎসব। কিন্তু তারই মধ্যে টিকা প্রদানের সংখ্যা কিছুটা নিম্মগামী বলেই মনে করেছেন বিশেষজ্ঞরা। 

লাদাখের পর এবার ব্রহ্মপুত্রের দিকে নজর চিনের, তিব্বতে বাঁধ তৈরির পরিকল্পনায় উদ্বেগ ভারতের ...