করোনা ভাইরাসকে ঠেকাতে রাজ্য জুড়ে লকডাউনের নির্দেশ দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কিন্তু সেই নির্দেশ তো মানলেনই না, উল্টে পুলিশকে 'হেনস্তা করে' গ্রেফতার হলেন খোদ তৃণমূল কাউন্সিলরই। ঘটনাটি ঘটেছে হুগলির কোন্ননগরে।

আরও পড়ুন: লকডাউনের আগে দেদার 'মিষ্টিমুখ', খদ্দের সামলাতে গিয়ে হিমশিম খেলেন দোকানের কর্মীরা

ঘটনাটি ঠিক কী? মঙ্গলবার সকালে লকডাউন সফল করতে হুগলির কোন্ননগরে পথে নামে উত্তরপাড়া থানার পুলিশ। এলাকার একটি মিষ্টির দোকান ভিড় দেখে পুলিশকর্মীরা এগিয়ে যান। দোকানটি বন্ধ করার নির্দেশ দেওয়া হয়। তখন দোকানে হাজির ছিলেন কোন্ননগর পুরসভার তৃণমূল কাউন্সিলর তন্ময় দেব। দোকান কেন বন্ধ করা হবে? পুলিশকর্মীদের সঙ্গে কাউন্সিলর রীতিমতো বচসায় জড়িয়ে পড়েন বলে অভিযোগ। প্রত্যক্ষদর্শীদের দাবি, পুলিশকর্মীদের রীতিমতো হেনস্তা করেন  কাউন্সিলর, এমনকী ধাক্কা দিয়ে  সরিয়ে দেওয়ারও চেষ্টা করেন তিনি। এরপরই অভিযুক্তকে কাউন্সিলরকে গ্রেফতার করে আনা হয় উত্তরপাড়ায় থানায়। তাঁর বিরুদ্ধে ১৮৮ ধারায় মামলা দায়ের করেন তদন্তকারীরা। শেষপর্যন্ত অবশ্য জামিনে ছাড়া পেয়ে যান তৃণমূল কাউন্সিলর তন্ময় দেব।

আরও পড়ুন: লকডাউনকে বুড়ো আঙুল, মেদিনীপুরে ডিজে বাজিয়ে হুল্লোর নাচ

এদিকে এই ঘটনার নিন্দা করেছেন তৃণমূল কংগ্রেসের হুগলি জেলা সভাপতি দিলীপ যাদব। তাঁর বক্তব্য, আইন আইনের পথে চলবে। কাউন্সিলর যদি সত্যিই পুলিশকে হেনস্তা করে থাকেন, তাহলে তা অত্যন্ত গর্হিত কাজ। দলীয়ভাবে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।