লকডাউনে ঘরবন্দি হয়ে দিন কাটছে সাধারণ মানুষের। নেতা-মন্ত্রীরা কি সব নিয়মের উর্ধ্বে? দিল্লি থেকে ফিরেও হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকতে রাজি নন বিজেপি সাংসদ ও কেন্দ্রীয় মন্ত্রী দেবশ্রী চৌধুরী। বাড়িতে পুরসভা কর্মীদের নোটিস লাগাতে দিলেন না তিনি। শোরগোল পড়ে দিয়েছে উত্তর দিনাজপুরের রায়গঞ্জে।

আরও পড়ুন: মমতাকে আড়াই কোটি অর্থ সাহায্য, করোনা মোকাবিলায় কলকাতার ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর

ঘটনার সূত্রপাত বৃহস্পতিবার। সেদিন রায়গঞ্জে মানুষকে করোনা নিয়ে সচেতন করতে পথে নামেন স্থানীয় সাংসদ ও কেন্দ্রীয় মন্ত্রী দেবশ্রী চৌধুরী। বিজেপি কর্মীদের সঙ্গে নিয়ে মাস্ক বিলি করেন তিনি। লকডাউন সফল করে রীতিমতো মাইকিং করে চলে প্রচারও। কিন্তু সরকারি নির্দেশে তো এখন বাইরে থেকে এলেই ১৪ দিন হোম আইসোলেশনে থাকতে হচ্ছে সকলেই। তাহলে দিল্লি থেকে এসেই কীভাবে রাস্তায় বেরিয়ে পড়লেন খোদ কেন্দ্রীয় মন্ত্রী দেবশ্রী চৌধুরী? প্রশ্ন তোলেন বিরোধীরা। রায়গঞ্জের বিজেপি সাংসদের বিরুদ্ধে বিধিভঙ্গের অভিযোগে জেলাশাসকের কাছে নালিশ জানানো হয়।  আলাদাভাবে অভিযোগ করা হয় রায়গঞ্জ পুরসভার তরফেও। 

আরও পড়ুন: নিজামুদ্দিন যোগ এবার পুরুলিয়ায়, তথ্য প্রকাশ করলেন খোদ পুলিশ সুপার

আরও পড়ুন: লকডাউনে ঘরবন্দি বৃদ্ধ, বাড়িতে পেনশনের টাকা পৌঁছে দিল ডাকবিভাগ

জানা গিয়েছে, শনিবার ফ্ল্যাটে হোম কোয়ারেন্টাইনের নোটিশ লাগাতে গেলে পুরসভার কর্মীদের বাধা দেন রায়গঞ্জের বিজেপি সাংসদ দেবশ্রী চৌধুরী। সাংসদের সাফাই, তিনি হোম আইসোলেশনেই আছেন। ফ্ল্যাটের দরজায় নোটিশ দেখলে অহেতুক আতঙ্কিত হয়ে পড়বেন স্থানীয় বাসিন্দারা। ঘটনাটি রাজ্য সরকারকে জানানো হবে বলে স্বাস্থ্য দপ্তর সূত্রে খবর।