করোনা আতঙ্কে এবার পোস্ট অফিসেও! সংক্রমণের ভয়ে 'লিংক ফেল'-এর নোটিশ ঝুলিয়ে দিলেন দায়িত্বপ্রাপ্ত আধিকারিক। টাকা তুলতে না পেরে বিপাকে পড়েছেন গ্রাহকরা। উত্তর দিনাজপুরের রায়গঞ্জের ঘটনা।

আরও পড়ুন: রাস্তার মোড়ে মোড়ে করোনার ছবি এঁকে অভিনব প্রচার পুলিশ

কী ব্যাপার? শুনসান রাস্তাঘাট, বন্ধ স্কুল- কলেজ-অফিসও। লকডাউনের জেরে বিপর্যস্ত জনজীবন। জরুরি প্রয়োজন ছাড়া রাস্তায় বেরোচ্ছেন না কেউ। অকারণে বাইরে বেরোলে কিংবা জমায়েত করলে, কড়া ব্যবস্থা নিচ্ছে পুলিশ। রাজ্যের সর্বত্র এখন একই ছবি। এরমধ্যেই কিন্তু স্বাভাবিক কাজকর্ম চলছে ব্যাঙ্ক, পোস্ট অফিসে। কারণ,নাগরিকদের ভোগান্তি কমাতে জরুরি পরিষেবাকে লকডাউনের আওতায় রেখেছে সরকার। কিন্তু হলে কী হবে! উত্তর দিনাজপুরে রায়গঞ্জের সুপার মার্কেট এলাকায় পোস্ট অফিসে পরিষেবা মিলছে না। টাকা তুলতে গিয়ে খালি হাতেই ফিরতে হচ্ছে গ্রাহকদের। কেন? প্রায় সপ্তাহ দুয়েক ধরে পোস্ট অফিসে ঝুলছে 'লিংক ফেল'-এর নোটিশ! কর্তৃপক্ষের দাবি, অফিসের সবকটি কম্পিউটার নাকি বিকল হয়ে গিয়েছে। তাই কাজকর্ম লাটে উঠেছে। 

আরও পড়ুন: পায়ে হেঁটে বাড়ির পথে, লকডাউনের মাঝে বিহার থেকে উত্তর দিনাজপুরে ঢুকলেন শ্রমিকরা

আরও পড়ুন: দিল্লির ধর্মীয় সভা থেকে বাংলায় ঢুকেছে একশোরও বেশি, করোনা আতঙ্কে খোঁজ শুরু রাজ্য়ের

যদিও এই দাবি মানতে রাজি নন গ্রাহকরা। তাঁদের অভিযোগ, লকডাউনের মাঝেও পোস্ট অফিসের লোকজনেক আনাগোনা লেগেই থাকত। তাই করোনা সংক্রমণের ভয়ে ইচ্ছাকৃতভাবেই 'লিংক ফেল' নোটিশ ঝুলিয়ে দিয়েছেন দায়িত্বপ্রাপ্ত আধিকারিক । শুধু তাই নয়, নানা অছিলায় গ্রাহকদের অন্যত্র পাঠিয়ে দেওয়া হচ্ছে। অভিযোগ অস্বীকার করা হয়েছে পোস্ট অফিসের তরফে।