পরিস্থিতি একেবারেই নিয়ন্ত্রণে বাইরে চলে গিয়েছে। কিছুতেই সামাল দেওয়া যাচ্ছে না ইতালির করোনাভাইরাস পরিস্থিতির। এর মধ্যেই একদিনে মৃতের সংখ্যায় নিজের পুরনো রেকর্ড ভেঙে ফেলল দেশটি। গত ২৪ ঘণ্টায় ইতালিকে করোনা সংক্রমণে প্রাণ গিয়েছে  প্রায় হাজার জনের।

৫ সপ্তাহ ধরে করোনা সংক্রমণে কাবু ইউরোপের দেশটি। আক্রান্তের সংখ্যা পৌঁছে গেছে ৮৬,৫০০ তে। করোনাভাইরাস সংক্রমণের ঘটনায় ইতালির আগে কেবলমাত্র রয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। সরকারি ভাবে জানান হয়েছে  ইতালিতে গত শুক্রবার  করোনা সংক্রমণের জেরে প্রাণ হারিয়েছেন ৯৬৯ জন। ফলে দেশটিতে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৯,১৩৪। 

করোনা শত্রুর বিরুদ্ধে নতুন অস্ত্র, নিউক্লিয়ার বাঙ্কার কাজে লাগাচ্ছে ইজরায়েল

কোয়ারেন্টাইন থেকে পালিয়ে বান্ধবীর বিপদ বাড়ালেন যুবক, তরুণীকেও পাঠান হল আইসোলেশনে

করোনা যুদ্ধে সামিল ভারতীয় রেল, ট্রেনের বগিতেই বানান হচ্ছে কোয়ারেন্টাইন

এদিকে ধীরে ধীরে ভয় ধরানো পরিস্থিতি তৈরি হচ্ছে ইউরোপের আরেকটি দেশ ফ্রান্সেও। গত ২৪ ঘণ্টায় ফরাসি দেশে করোনা সংক্রমণে প্রাণ হারিয়েছেন ২৯৯ জন। ফলে দেশটিতে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১,৯৯৫। গত বৃহস্পতিবার ফ্রান্সে করোনা সংক্রমণে মৃত্যু হয়েছিল ৩৬৫ জনের। তবে দেশটিতে প্রকৃত মৃতের সংখ্যা আরও বেশি বলেই মনে করা হচ্ছে। কারণ বাড়িতে যা করোনাভাইরাসের শিকার হয়ে মারা গিয়েছেন তাঁদের সংখ্যাটা এই পরিসংখ্যানের অন্তর্ভুক্ত করা হয়নি। বর্তমানে ফরাসি দেশে কোভিড ১৯ আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ৩২,৯৬৪।

ব্রিটেনের অবস্থাও উদ্বেগ জনক। শুক্রবার দেশের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন ছাড়াও আরও ৩০০০ জনের আক্রান্ত হওয়ার খবর পাওয়া গিয়েছে। ব্রিটেনে এটাই এখনও পর্যন্ত একদিনে সর্বোচ্চ আক্রান্তের সংখ্যা। যার ফলে দেশটিতে করোনা সংক্রমণের সংখ্যাটা দাঁড়িয়েছে ১৪,৫৪৩ জন। মৃতের সংখ্যাও লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়িছে রানির দেশে। শুক্রবার পর্যন্ত দেশটিতে মৃতের সংখ্যা ছিল ৭৫৯।  বর্তমানে গোটা বিশ্বে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৬ লক্ষ ছুঁয়ে ফেলেছে। মৃতের সংখ্যা পৌঁছে গেছে ২৭ হাজারের ঘরে।