ব্রিটেনে ভয়ানক আকার ধারণ করেছে করোনাভাইরাস মহামারী। ব্রিটিশ রাজপুত্র থেকে প্রধানমন্ত্রী-সহ বেশ কয়েকজন সীর্ষনেতা তো এই রোগে আক্রান্ত হয়েইছেন। তার উপর বুধবারই সেই দেশে একদিনে প্রায় ৫০০ লোকের মৃত্যু হয়েছে। গত দুই সপ্তাহ ধরেই সেই দেশে চলছে লকডাউন। রাস্তাঘাট ফাঁকা। আর সেই রাস্তাতেই একেবারে দিনের বেলায় রীতিমতো দুইপায়ে চলেফিরে বেড়াতে দেখা গেল একটি ঝোপ জাতীয় গাছকে।

হার্টফোর্ডশায়ার-এর স্টিভেনজ এলাকায় নিজেদের বাড়ির বারান্দায় বসে ফাঁকা রাস্তার নিস্তব্ধতা উপভোগ করছিলেন নিকোলাস মারে এবং মেডলিন মাই-ডেভিস নামে এক দম্পতি। আচমকা ওই দৃশ্য দেখে তাঁরা স্তম্ভিত হয়ে যান। মোবাইল ক্যামেরা নিয়ে এসে সেই দৃশ্যের ভিডিও রেকর্জিং করতে গিয়ে তাঁরা বুঝতে পারেন কোনও ঝোপ দু'পায়ে হেঁটে বেড়াচ্ছে না, আসলে একটি মানুষই ঝোপ সেজে ঘুরে বেড়াচ্ছেন।

নিষিদ্ধ 'করোনাভাইরাস' শব্দটিই, মাস্ক পরলে হাজতবাস, ঘুরছে সাদা পোশাকের পুলিশ

করোনার হাত ধরেই আসছে আরও বড় বিপদ, একসঙ্গে সতর্ক করল তিন বিশ্ব-সংস্থা\

'করোনা করে না বৈষম্য, ইমরান সরকার করে', অমানবিকতার শিকার পাক হিন্দুরা

তাঁরা সেই ভিডিওটি ইন্টারনেটে পোস্ট করার পর স্বাভাবিকভাবেই সেই ভিডিওটি ভাইরাল হয়েছে। ভিডিওটিতে দেখা যাচ্ছে, লোকটি আপাদমস্তক ঝোপঝাড়ের পাতা দিয়ে ঢাকা। সেই ঝোপ-পোশাকে তাকে প্রথমে দেখা যায়, একটি বাড়ির সামনে সত্যিকারের ঝোপের সঙ্গে মিশে লুকিয়ে থাকতে। রাস্তা দিয়ে সেই সময় একটি ডেলিভারি ট্রাক যাচ্ছিল। সেটি চলে যেতেই লোকটি ঝোপ আড়াল থেকে বেড়িয়ে রাস্তায় ধরে হাঁটতে শুরু করে।

ভিডিওটির শেষদিকে, লোকটিকে একটি বাদামী প্যাকেটে কিছু জিনিস নিয়ে ফিরে আসতে দেখা যায়। সেই সময় কখনও সে হামাগুড়ি দিয়েছে, কখনও মাটিতে গড়িয়ে গড়িয়ে রাস্তা পার হয়েছে।

ভিডিওটি সোশ্যাল মিডিয়া ভাইরাল হওয়ার পর অনেকেই তাঁর ছদ্মবেশ এবং চোখের সামনেই লুকিয়ে থাকার দক্ষতার প্রশংসা করেছেন। কেউ কেউ বলেছেন, চাইলে ওই লোকটি বড় গোয়েন্দা হতে পারে। তবে অধিকাংশ মানুষই লকডাউনের রাস্তায় বেরিয়ে নিজের সঙ্গে অন্যান্যদের কোভিড-১৯ আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা বাড়িয়ে তোলার বিষয় নিয়ে উদ্বেগ-অভিযোগ জানিয়েছেন।