চিন, ইতালির পর এবার করোনাভাইরাসের এপিসেন্টার পৃথিবীর সবচেয়ে শক্তিশালী দেশ আমেরিকা। দেশটিতে বর্তমানে মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৭,৪০৬। আগে কেবল রয়েছে ইতালি ও স্পেন। তবে একদিনে মৃতের সংখ্যায় সেই ইতালিকেও পিছনে ফেলে দিয়েছে ট্রাম্পের দেশ। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে মৃত্যু হয়েছে প্রায় দেড় হাজার মানুষের। অন্যদিকে ইতালিতে এখনও পর্যন্ত করোনায় একদিনে সর্বোচ্চ  মৃতের সংখ্যা ছিল প্রায় হাজার।

জপ হপকিনং বিশ্ববিদ্যালয়ের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী গত শুক্রহার মার্কিন মুলুকে করোনা সংক্রমণে প্রাণ হারিয়েছেন ১,৪৮০ জন। এই অবস্থায় প্রতিটি মার্কিন নাগরিক যাতে পথে বের হওয়ার সময় মাস্ক পড়েন তার অনুরোধ জানিয়েছেন খোদ প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। এতদিন পর্যন্ত কেবল মাত্র অসুস্থ ব্যক্তিদেরই মাস্ক পরার পরামর্শ দিচ্ছিল মার্কিন প্রশাসন।

 

 

এদিকে মার্কিন মুলুকে করোনা সংক্রমণে প্রাণ হারান ৭ হাজারের বেশি নাগরিকের মধ্যে নিউইয়র্ক শহরের বাসিন্দার সংখ্যা প্রায় হাজার। আমেরিকায় সবচেয়ে বেশি সংক্রমণ এই অঞ্চলেই ছড়িয়েছে। 

লকডাউনকে বুড়ো আঙ্গুল পাকিস্তানে, পুলিশের গাড়িতে পাথর ছুঁড়ল উন্মত্ত জনতা, দেখুন ভিডিও

জুনে পরিস্থিতি হবে সবচেয়ে খারাপ, সমীক্ষা বলছে লকডাউন চলতে পারে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত

করোনা সংক্রমণের মধ্যেই নতুন বিপদ জাপানের সামনে, আগ্নেয়গিরির ভস্মের নিচে ঢাকতে চলেছে টোকিও

বিশ্বে  করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বর্তমানে ১১ লক্ষের গণ্ডি টপকে গিয়েছে। এখনও পর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে ৫৯ হাজারেরও বেশি মানুষের। অন্যদিকে করোনাভাইরাসকে পরাজিত করে সুস্থ হয়ে স্বাভাবিক জীবনে ফিরেছেন ২ লক্ষ ২৯ হাজার মানুষ। 

এসবের মধ্যেই ইতালিকে পিছনে ফেলে দিল স্পেনেও। মোট আক্রান্তের সংখ্যায় আমেরিকার পরেই এখন রয়েছে স্পেন। বর্তমানে দেশটিতে আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১ লক্ষ ১৭ হাজার ৭১০ জন। এদিকে মৃতের সংখ্যায় এখনও পর্যন্ত সবার আগে রয়েছে ইতালি। দেশটিকে করোনা প্রাণ কেড়েছে ১৩ হাজার ৯১৫ জনের। অন্যদিকে দ্বিতীয় স্থানে থাকা স্পেনে মৃতের সংখ্যা বর্তমানে ১০,৯৩৫।