বয়স তার পাঁচও হয়নি। তার আগেই ইনস্টাগ্রা ফলোয়ারের সংখ্য়া ১ মিলিয়ন অর্থাত ১০ লক্ষ ছাড়িয়ে গেল এমএস ধোনি ও সাক্ষী ধোনির কন্যা জিভা সিং ধোনির। মাঝে মধ্যেই ইনস্টাগ্রামে ধোনি ও তাঁর কন্যার নানা রকম মজার আদান প্রদানের ভিডিও বা ছবি দেখা যায়। যা নিয়ে আলোড়িত হয় সোশ্যাল মিডিয়া।

কখনও বাবা-মেয়ে-কে দেখা যায় গান চালিয়ে তালে তালে নাচতে। কখনো ধোনি জিভার সঙ্গে প্রায় ছয়টি বিভিন্ন ভাষায় কথা বলেন। আবার নির্বাচনের সময় সবাইকে ভোট দেওয়ার আর্জিও জানিয়েছিল ছোট্ট জিভা। বাবা-মেয়ের এই সব মজাদাদর কর্মকাণ্ড ধোনি ভক্তদের খুব প্রিয়। তাই পুঁচকে বয়সেই তার বিখ্যাত বাবার মতো জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে সে।

বর্তমানে জিভা ও তাঁর মা ইংল্যান্ডে রয়েছে। বাবা মহেন্দ্র সিং ধোনি খেললেই গ্যালারি থেকে বাবাকে উৎসাহ দিচ্ছে সে। সেই এখন ধোনির সবচেয়ে বড় সমর্থক। রবিবার বিশ্বকাপে অস্ট্রেলিয়ার মুখোমুখি ভারত। প্রথম ইনিংসের একেবারে শেষ দিকে ধোনি ২৭ রানের একটি ক্যামিও ইনিংস খেলেছেন তিনি। এদিনও ওভালের গ্যালারিতে বাবা ব্যাট করার সময়ে ঠায় দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা গিয়েছে।