বিশ্বকাপে আর ব্যাট হাতে দেখা যাবে না ক্রিস্টোফার হেনরি গেইল-কে। বৃহস্পতিবার হেডিংলেতে খেলা চলছে বিশ্বকাপের পয়েন্ট তালিকার শেষ দুই দল আফগানিস্তান ও ওয়েস্টইন্ডিজের। টসে জিতে ক্যারিবিয়ানরা প্রথমে ব্যাট নেওয়ায় দারুণ উচ্ছাস দেখা গেল গ্যালারিতে। দর্শকরা তৈরি ছিলেন একেবারে শুরু থেকে লিডসের মাঠে গেইল শো দেখার জন্য।

কিন্তু তাদের হতাশই হতে হল। শোনা যায় তাঁর শেষ ইনিংস খেলার সময় ডন ব্য়াডম্যানের মাকি চোখে জল এসে গিয়ে বল দেখতে সমস্যা হয়েছিল। তাই শূন্য রানেই আউট হয়ে যান। গেইলের সেইরকম সমস্যা হয়েছিল কিনা জানা নেই, কিন্তু বিশ্বকাপের শেষদিনে একেবারেই চলল না তার ব্য়াট।

১৮টি বল খেলে ৭ রানের বেশি করতে পারলেন না কিংবদন্তি। তারমধ্য়েই একটি চারও মারলেন। তাতেই দারুণ উন্মাদনা দেখা গেল গ্যালারিতে। কিন্তু তারপরই ঘটে গেল অ্যান্টিক্লাইম্য়াক্স। দৌলত জাদরানের অফস্টাম্পের বাইরের বলে চালাতে গেলেন, বল তাঁর ব্য়াট ছুঁয়ে চলে গেল উইকেটরক্ষকের হাতে। মুহূর্তের মধ্য়ে গ্যালারি নিস্তব্ধ। খেলার শুরুর সময়ে কিন্তু বেশ আবেগপ্রবণ হয়ে পড়েছিলেন এই ক্যারিবিয়ান দৈত্য। তবে মুখের চিররিচিত খোলামেলা হাসিটি সবসময়ই ধরে রেখেছিলেন। দলের সতীর্থরা সবাই তাঁকে আলিঙ্গন করেন।

এদিন দু-দুটি বড় রেকর্ডের সামনেও দাঁড়িয়ে ছিলেন তিনি। ১৮ রান করলেই একদিনের ক্রিকেটে ওয়েস্টইন্ডিজের সর্বোচ্চ রানাধিকারী হতে পারতেন। ভেঙে দিতে পারতেন ব্রায়ান লারার রেকর্ড। ২৯৯টি ওডিআই খেলে লারা করেছিলেন ১০৪০৫ রান। গেইলের ছিল ২৯৭ ম্যাচে ১০৩৮৬ রান। আর ৪৭ রান করলে এদিন লারার আরো একটি রেকর্ড ভাঙতে পারতেন তিনি। বিশ্বকাপে ওয়েস্টইন্ডিজের পক্ষে সবচেয়ে বেশি রান রয়েছে ব্রায়ান লারার। তাঁর বিশ্বকাপে ১২২৫ রান রয়েছে। গেইল শেষ করলেন ৪০ রান দূরে।

প্রথমে বলেছিলেন, বিশ্বকাপের পরই তিনি অবসর নেবেন। পরে সিদ্ধান্ত বদলে তিনি বলেন ভারতের বিরুদ্ধে ঘরের মাঠে টেস্ট ও ওডিআই খেলবেন। কাজেই একদিনের ক্রিকেটে এখনও লারাকে টপকে যাওয়ার সুযোগ থাকছে তাঁর কাছে। কিন্তু বিশ্বকাপে লারাই থেকে গেলেন ক্যারিবিয়ানদের মধ্যে সবচেয়ে বেশি রানের মালিক।

এই সব রেকর্ড না হওয়া, ব্যাট হাতে তাঁর ব্য়র্থ হওয়া - এতকিছুর পরেও তিনিই ইউনিভার্স বস থাকবেন বলে দাবি করেছেন গেইল। কেনও? আইসিসি-কে দেওয়া এক সাক্ষাতকারে বিশ্ব ক্রিকেটের এই বর্ণময় চরিত্র জানিয়েছেন, তিনি যে পঞ্চম বিশ্বকাপ খেলতে মাঠে নামছেন, সেটাই তাঁর উত্রাধিকার।, সেটাই বলে দিচ্ছে তিনিই বস, ইউনিভার্স বস।