বিশ্বকাপ শুরুর আগে ইংল্যান্ড দলের যে দুই ব্যাটসম্যানকে নিয়ে সবচেয়ে বেশি আলোচনা ছিল, তারা হলেন জস বাটলার এবং জনি বেয়ারস্টো। কিচুটা যেন পিছনের সারিতেই চলে গিয়েছিলেন জো রুট। এইবারের বিশ্বকাপের প্রথম শতরানটি কিন্তু এল রুটের হাত ধরেই। সোমবার পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ম্যাচে তিনি বোঝালেন, কেন তাঁকে আধুনিক যুগের সেরা চার ব্যাটসম্যানের একজন ধরা হয়।    

সোমবার ট্রেন্টব্রিজে প্রথমে ব্যাট করে পাকিস্তান ৫০ ওভারে ৩৪৮ রান তোলে। রানটা তাড়া করতে নেমে, বেশ দ্রুতই আউট হয়ে যান জেসন রয়। ১২ রানে ১ উইকেট পড়ে গিয়েছে এই অবস্থায় ব্য়াট করতে নামলেন রুট। তারপর সেখান থেকে ১০৪ বলে ১০৭ রান করে তিনি যখন থামলেন, তখন ইংল্যান্ডের স্কোর ৩৮,৫ ওভারে ২৪৮-৫। জয়ের জন্য ৬৮ বলে ১০১ রান দরকার।

রুটের শতরান আসে ৯৭ বলে। শেষ পর্যন্ত ১০টি চার ও ১টি ছয় মারেন তিনি। শেষ পর্যন্ত শাদাব খানের বলে থার্ডম্যানে মহম্মদ হাফিজের হাতে ক্যাচ দিয়ে প্যাভিলিয়নে ফেরেন তিনি।

শুধু শতরান করাই নয়, বাটলারের সঙ্গে ষষ্ঠ উইকেটে ১৩০ রানের জুটিও গড়েন তিনি। এখন তাঁর এই শতরান শেষ পর্যন্ত ইংল্যান্ডকে জয় এনে দেয় কি না, সেটাই দেখার।