সব জল্পনা, সব প্রতীক্ষার অবসান। অবশেষে ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৯-এর পিচে প্রথম বল পড়ার ছয় দিন পর অভিযান শুরু করতে চলেছে বিরাট কোহলির ভারত। ইংল্যান্ডের বন্দর শহর সাউদাম্পটনের রোজ বোলে দক্ষিণ আফ্রিকতার বিরুদ্ধে নামছে মেন ইন ব্লুজ। এই সাউদাম্পটন থেকেই বিখ্যাত বিলাসবহুল জাহাজ, টাইটানিকের অমর যাত্রা শুরু হয়েছিল। সেই শহরে বিরাটদের মুখোমুখি হওয়ার আগেই অবশ্য প্রতিপক্ষের জাহাজের ডুবে যাওয়ার দশা হয়েছে।

বিশ্বকাপ যাত্রার শুরু থেকেই এরেবারে তীব্র ঝড়ের মুখে পড়েছে প্রোটিয়া শিবির। প্রথম ম্য়াচে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে বিশাল হার। পরের ম্যাচে চনমনে বাংলাদেশের বিরুদ্ধেও পরাস্ত হতে হয়েছে। সেমিফাইনালের লড়াইতে টিকে থাকতে গেলে ভারত ম্য়াচ জিততেই হবে। এই অবস্থায় জাহাজ ডুবি রুখতে যিনি নাবিক হতে পারতেন, সেই ডেল স্টেইনও ছিটকে গিয়েছেন। নেই আরেক সারেং এনগিদিও।

দক্ষিণ আফ্রিকার এইবারের দলের ব্য়াটিং বলতে ডি কক আর ডু প্লেসিস। ডুমিনি, মিলাররা ফর্মে নেই। ফেহলুকাওইও বা ডুসেনের লম্বা ইনিংস খেলার বিশেষ ক্ষমতা নেই। এই অবস্থায় তাঁদের দলকে ভারসাম্য দিতে পারত বোলিং। হাতে ছিল লুঙ্গি এনগিদি, কাগিসো রাবাডা, ডেল স্টেইনের ভয়ঙ্কর পেস আক্রমণ ও সঙ্গে ইমরান তাহিরের ম্য়াজিক। কিন্তু চোট আঘাতে তাও এখন অতি দুর্বল হয়ে পড়েছে। ফডু প্লেসিসের সামনে অনেক ধাঁধার সমাধান বাকি পড়ে রয়েছে।

অন্যদিকে গত কয়েক বছরে অন্যতম ধারাহবাহিক দল ভারত। কিন্তু বিশ্বকাপের ঠিক আগের সিরিজেই অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে সিরিজ হার একটা বড় ঝাকুনি দিয়েছে। অবশ্য় বিশ্বকাপের অনুশীলন ম্যাচে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে ভারতের খেলা দেখে বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন, দল আবার তার আগের জায়গায় ফিরে এসেছে। বিশেষ করে ধোনি ও কেএল রাহুলের রান পাওয়াটা টিম ম্যানেজমেন্টকে অনেকটাই নিশ্চিন্ত করেছে।

ভারতীয় দলের খবর

ভারতীয় দলের সূত্রে জানা গিয়েছে বুধবার চার নম্বর জায়গায় খেলছেন কেএল রাহুলই।

তবে কেদার যাদবের চোট থাকায় খেলবেন সম্ভবত বিজয় শঙ্করও।

আর প্রথম ম্যাচে কুল-চা'কে জায়গা দিতে হয়ত বাইরে বসতে হচ্ছে জাদেজাকে।

দক্ষিণ আফ্রিকা দলের খবর

চোটের জন্য বিশ্বকাপ থেকেই ছিটকে গিয়েছেন ডেল স্টেইন। তাঁর বদলে আসছেন বিউরান হেন্ড্রিক্স।

খেলতে পারবেন না এনগিদিও। তবে তাঁকে সুস্থ করার চেষ্টা চলছে।

খেলবেন হাশিম আমলা।

এনগিদি না খেলতে পারলে প্রিটোরিয়াসকে জোরে বোলার হিসেবে খেলানো হবে।

মাঠের ইতিহাস

রেকর্ড বই বলছে রোজ বোলে প্রথম ইনিংস-এর গড় রান ২৬২, দ্বিতীয় ইনিংসের ২১৩। তবে সাম্প্রতিক কালে বেশ বড় রান উঠতে দেখা গিয়েছে এই মাঠে। সর্বোচ্চ রান ৩৭৩/৩। এই রানটা ইংল্যান্ড করেছিল পাকিস্তানের বিরুদ্ধে।

দুই দলের সম্ভাব্য প্রথম একাদশ -

দক্ষিণ আফ্রিকা

হাশিম আমলা, কুইন্টন ডি কক (উইকেটরক্ষক), এডেন মার্করাম / ভ্যান ডার ডুসেন, ফাফ ডু প্লেসিস (অধিনায়ক), জেপি ডুমিনি, ডেভিড মিলার, ফেহলুকাওইও, ক্রিস মরিস, কাগিসো রাবাডা, প্রিটোরিয়াস / এনগিদি, ইমরান তাহির

ভারত

রোহিত শর্মা, শিখর ধাওয়ান, বিরাট কোহলি (অধিনায়ক), কেএল রাহুল, এমএস ধোনি (উইকেটরক্ষক), কেদার যাদব / বিজয় শঙ্কর, হার্দিক পাণ্ডিয়া, কুলদীপ যাদব, যুজবেন্দ্র চাহাল, মহম্মদ শামি, যশপ্রীত বুমরা