সোমবার শুরু থেকেই দারুণ ব্যাট করেছে পাকিস্তান। পাওয়ার প্লে-তে খুবই দ্রুত গতিতে রান তুলেছেন ইমাম-উল-হক ও ফখর জামান। বিশেষ করে ইমাম দুরন্ত ছন্দে ব্য়াট করছিলেন। অর্ধশতরানের প্রায় কাছে পৌঁছে গিয়েছিলেন। গ্যালারিতেও সেই কারণেই শুরু থেকেই দারুণ উচ্ছ্বাস দেখা গিয়েছে পাক সমর্থকদের মধ্যে। কিন্তু একটি অনবদ্য ক্যাচে এক ঝটকায় তাঁদের চুপ করিয়ে দেন ক্রিস ওকস।

ইংল্যান্ড খেলোয়াড়দের কি জামার নিচে প্যারাসুট আছে?

দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ম্যাচে বেন স্টোকস-কে দেখা গিয়েছিল, উড়ে গিয়ে, না দেখে, একহাতে একটি দারুণ ক্য়াচ নিতে। আর এদিন মইন আলির একটি ভাসানো বল লঙ অফের উপর দিয়ে উড়িয়ে দিয়েছিলেন ইমাম। অনেকটা দৌড়ে ডানদিকে ঝাঁপ দিয়ে দুই হাতে তা তালুবন্দী করলেন ক্রিস ওকস। আর এরপরই সোশ্যাল মিডিয়ায় আলোচনা শুরু হয়েছে, ইংল্যান্ড খেলোয়াড়দের কি জামার নিচে প্যারাসুট আছে?

চুপ করালেন গ্যালারিকে

ওকসের ওই ক্যাচের আগে অবধি পাকিস্তানের দুরন্ত ব্য়াটিং-এ গ্যালারি-তে প্রায় কার্নিভালের পরিবেশ ছিল। বার্মিংহামেই বড় হয়েছেন ওকস, যেখানে প্রচুর পাকিস্তানি ও ভারতীয়ের বাস। বাউন্ডারি লাইনে দাঁড়িয়ে তাঁদের হিন্দি ও উর্দু ভাষা কথা নিশ্চয়ই কিছু কিছু মগজে ঢুকছিল তাঁর। তাই ক্যাচ ধরে উঠেই তিনি মুখে আঙুল দিয়ে দর্শকদের চুপ থাকার ইঙ্গিত করেন।

চারটি ক্যাচে রেকর্ড

বল হাতে এদিন ব্যর্থ হলেও ফিল্ডিং-এ কিন্তু তাঁর হাতে এদিন সোনা ফলেছে। শুধু ওই একটি ক্য়াচই নয়, মোট চারটি ক্যাচ নিয়েছেন তিনি। বিশ্বকাপের একটি ম্য়াচে চারটি ক্যাচ এর আগে নিয়েছেন শুধু তিন ক্রিকেটার -

মহম্মদ কাইফ (ভারত) বনাম শ্রীলঙ্কা, জোহানেবার্গ, ২০০৩
সৌম্য সরকার (বাংলাদেশ) বনাম স্কটল্যান্ড, নেলসন ২০১৫
উমর আকমল (পাকিস্তান) বনাম আয়ারবল্যান্ড, অ্যাডিলেড ২০১৫
ক্রিস ওকস (ইংল্য়ান্ড) বনাম পাকিস্তান, নটিংহ্যাম ২০১৯