ধোনির অবসর নিয়ে জল্পনা চলছেই। রবিবার ওয়েস্টইন্ডিজ সফরের জন্য ভারতীয় দল নির্বাচন করা হয়েছে। সেই সফরের তিন ফর্ম্যাটের কোনটিতেই নেই ভারতের প্রাক্তন অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনি। দলে উইকেটরক্ষক হিসেবে রয়েছেন ঋষভ পন্থ, আর টেস্ট দলে তাঁর সঙ্গে সঙ্গে প্রত্যাবর্তন ঘটেছে ঋদ্ধিমান সাহারও। তবে কি ধোনিকে অবসর গ্রহেই ঠেলে দিলেন নির্বাচকরা? জাতীয় নির্বাচক কমিটির প্রধান এমএসকে প্রসাদ কিন্তু বলছেন বিষয়টা সেইরকম নয়। 

দিনকয়েক আগে ধোনি নিজেই ভারতীয় বোর্ডকে জানিয়েছিলেন, তিনি ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে যাবেন না। মাস দুয়েক-এর জন্য সেনার প্যারা রেজিমেন্টে যোগ দিতে চান তিনি। নির্বাচক কমিটির প্রধান জানিয়েছেন, ধোনির অনুপস্থিতিতে ওয়েস্টইন্ডিজ সফরে টেস্ট, টি২০, ওয়ানডে - তিন সংস্করণেই উইকেটরক্ষক হিসেবে ভারতীয় দলের প্রথম পছন্দ আপাতত ঋষভ পন্থ। ২০২০ সালের টি২০ বিশ্বকাপকে সামনে রেখে পন্থকেই যত বেশি সম্ভব সুযোগ দেওয়া হবে। 

এমএসকে প্রসাদ আরও জানান, বিশ্বকাপের পর্যন্ত তাদের একরকম পরিকল্পনা ছিল। বিশ্বকাপের পর ভারতীয় দলের জন্য নতুন করে পরিকল্পনা করা হয়েছে। সরাসররি না বললেও সেই পরিকল্পনায় ধোনির যে কোনও জায়গা নেই, তা ঠারে ঠারে বুঝিয়ে দিয়েছেন নির্বাচক প্রধান। তিনি জানিয়েছেন, ঋষভ-কে বেশি করে সুযোগ দিয়ে তাঁকে ধোনির যোগ্য় উত্তরসুরী হিসেবে গড়ে তোলা যায়। আপাতত এটাই তাদের ভারতীয় দলের জন্য তৈরি নীল নকশা। 

মাহি-র অবসর প্রসঙ্গে এমএসকে প্রসাদ বলেন, ধোনির এক কিংবদন্তি ক্রিকেটার। কাজেই অবসরের উপযুক্ত সময়টা তিনি নিজেই সবচেয়ে ভাল জানেন। তাঁর অবসরের সিদ্ধান্তটা নির্বাচকদের হাতে নেই। তবে আগামীদিনে ধোনি ভারতীয় দলে নির্বাচিত করা হবে কি হবে না, সেই সিদ্ধান্তটা নির্বাচক মণ্ডলীই নেবেন। এই বিষয়ে তাঁর  সঙ্গে এমএস-এর আলোচনাও হয়েছে। কিন্তু, তাতে ধোনি কী জানিয়েছেন, বা নির্বাচকদের পক্ষ থেকে তাঁকে কোনও বার্তা দেওয়া হয়েছে কিনা, সেই বিষয়ে মুখ খুলতে চাননি প্রসাদ।